Mir cement
logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

বিনোদন ডেস্ক, আরটিভি নিউজ

  ১১ এপ্রিল ২০২১, ১৯:১৫

সবকটার পাখনা কাটবো: মিঠুন চক্রবর্তী

সবকটার পাখনা কাটবো: মিঠুন চক্রবর্তী
ফাইল ছবি

বিজেপিতে যোগ দিয়ে হইচই ফেলে দিয়েছিলেন দাপুটে অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তী। তবে বিধানসভা নির্বাচনে তাকে কোনো কেন্দ্র থেকে প্রার্থী করেনি দলটি। প্রার্থী না হলেও দলীয় প্রার্থীদের প্রচারণায় মাঠে চষে বেড়িয়েছেন এই অভিনেতা।

পূর্ব বর্ধমানের রায়নায় বিজেপির সভায় তৃণমূলকে হুঁশিয়ারি দিয়ে মিঠুন চক্রবর্তী বলেন, ‘এরা রাজনীতি করতে নয়, বিজনেস করতে এসেছে। ভালো বিজনেস জুড়ে বসেছ না, সবকটার পাখনা কাটব। রাজনীতি বিজনেস নয়, রাজনীতি হল সেবা।’

তৃতীয়বার ক্ষমতায় এলে 'দুয়ারে রেশন' পৌঁছে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তৃণমূলনেত্রী মমতা ব্যানার্জি। তার সেই প্রতিশ্রুতির দিকে আঙুল তুলে ফাটাকেষ্ট বলেন, ‘১ তারিখে যদি সকলে রেশন তোলেন, তাহলে ৬ কোটি লোককে রেশন দিতে গেলে ৬ কোটি লোকের প্রয়োজন। সে লোক কোথায়? তার মানে যতদিন আপনার বাড়িতে রেশন পৌঁছবে না, ততদিন উনুন জ্বলবে না। এটা আর একটা বিজনেস প্ল্যান। মাসে ১ কোটি টাকা কামাই হবে, তাই এটা চালু করা হয়েছে।’

সাধারণ মানুষকে মরামর্শ দিয়ে তিনি বলেন, ‘এটা আপনার অধিকার। ভিক্ষা নেবেন না। নিজে দাঁড়িয়ে থেকে রেশন তুলবেন। আর বলবেন, এক গ্রামও যদি কম হয়, তাহলে এই নম্বরে ফোন করব, আর এমএলএ ফাটাকেষ্ট এখানে হাজির হবে'।

এদিকে বাংলায় বিজেপি ক্ষমতায় এলে সব হাসপাতালকে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত করা, বিদ্যুতের দাম কমানো, বিধবা ভাতা চালুসহ একাধিক প্রতিশ্রুতি পূরণের আশ্বাসও দেন মিঠুন।

এর আগে ৭ মার্চ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মঞ্চে হাজির হয়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন মিঠুন চক্রবর্তী। ধুতি-পাঞ্জাবি পরে আদ্যোপান্ত বাঙালি সাজেই বিজেপির ব্রিগেড সমাবেশে হাজির হয়েছিলেন তিনি। তাকে মঞ্চে পেয়ে তার অভিনীত ছায়াছবির সংলাপ শুনতে চান বিজেপির কর্মী-সমর্থকরা। সেই আবেদনে সাড়া দিয়ে মিঠুন নিজের ছবির সংলাপ ধার করে প্রথমে বলেন, ‘মারবো এখানে লাশ পড়বে শ্মশানে, এই ডায়লগটা চলবে।’

এরপরই তার সংযোজন, ‘আমার প্রচার শুরু করার আগে, একটা জিনিস মাথায় রাখবেন। এখানে সকলের ভাষণ এক জায়গায় করলে যা দাঁড়ায় তা হল, আমি জলঢোঁড়াও নই, বেলেবোড়াও নই। আমি জাত গোখরো। এক ছোবলে ছবি।’

তার এমন মন্তব্যের পর নেটাগরিকদের কড়া সমালোচনার মুখে পড়েন মিঠুন। তার নতুন রাজনৈতিক অবস্থান ঘিরে ফেসবুক ও হোয়াটসঅ্যাপে চলেছে ব্যাপক আলোচনা-সমোলোচনা। তবে এসব ব্যঙ্গতে কিছু যায় আসে না মিঠুন চক্রবর্তীর।

এদিকে বেহালা পশ্চিম কেন্দ্রর বিজেপির তারকা প্রার্থী শ্রাবন্তীর প্রচারে যোগ দেয়ার কথা ছিল মিঠুন চক্রবর্তীর। কিন্তু শেষ মুহূর্তে পুলিশ রোড শো-র অনুমতি না দেয়ায় সেখানে বিক্ষোভ দেখান বিজেপি কর্মী- সমর্থকরা। ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পুলিশের বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগে সরব হন শ্রাবন্তীও৷ পুলিশের সঙ্গে কথা কাটাকাটিতেও জড়ান তিনি। সেখানে পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তিও হয় বিজেপি কর্মীদের। এ সময় থানার সামনে পথ অবরোধও করেন বিজেপি কর্মী- সমর্থকরা। এক পর্যায়ে থানায় গিয়ে পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলেন শ্রাবন্তী। পুলিশ তাকে জানিয়েছে, অন্য একটি দলের রোড শো থাকায় ওই সময়ে মিঠুনের রোড শো-র অনুমতি দেয়া সম্ভব হয়নি৷ যদিও কোনো দলের রোড শো রয়েছে বা তার সমর্থনে কোনো নথি পুলিশ দেখাতে পারেনি বলে অভিযোগ শ্রাবন্তীর৷

সূত্র- জি নিউজ

এনএস

RTV Drama
RTVPLUS