logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১২ ফাল্গুন ১৪২৭

বিনোদন ডেস্ক

  ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১২:০০
আপডেট : ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১২:০২

বেঙ্গল সিমেন্ট নিবেদিত বাংলার গায়েন'র গ্রান্ড ফিনালে আজ

করোনাকালীন ঘরবন্দি সময়ে বাংলার মাটির সুরকে বিশ্বমাঝে নতুন আঙ্গিকে পরিচয় করিয়ে দিতে আরটিভি উদ্যোগ নেয় ভিন্নমাত্রার লোকগানের আয়োজনের। সেই প্রয়াসেই গত ১১ জুন আরটিভি’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ আশিক রহমান ফেসবুক লাইভে দেশ বরণ্য সঙ্গীতশিল্পী এবং সঙ্গীত পরিচালকদের উপস্থিতিতে উদ্বোধন ঘোষণার মাধ্যমে আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয় রিয়েলিটি শো ‘বেঙ্গল সিমেন্ট নিবেদিত বাংলার গায়েন’এর।

আয়োজনের প্রাথমিক বাছাই প্রক্রিয়া অনলাইন প্লাটফর্ম-এর মাধ্যমে সম্পন্ন হয়। দেশ ও বিদেশে প্রথমবারের মতো অনলাইন প্লাটফর্মে সফলভাবে এমন রিয়েলিটি শো-আয়োজনের নজির স্থাপন করেছে ‘বেঙ্গল সিমেন্ট নিবেদিত বাংলার গায়েন’। বাংলার গায়েন-এর আয়োজনে প্রতিযোগীদের সুবিধার্থে কর্তৃপক্ষ ‘বাংলার গায়েন’-এর ওয়েব পোর্টাল ছাড়াও, আরটিভি মিউজিক-এর অফিসিয়াল ফেসবুক পেইজ, বাংলার গায়েন এর অফিসিয়াল ফেসবুক পেইজ এবং জিমেইল এর মাধ্যমে গান পাঠিয়ে রেজিষ্ট্রেশনের সুযোগ করে দিয়েছিলো। প্রাথমিক বাছাই রাউন্ডে ২ লক্ষাধিক আবেদন থেকে যারা নির্দেশনা অনুযায়ী গান পাঠাতে পেরেছেন এমন ১৪৫১ জনকে রেজিষ্ট্রেশনের জন্য নির্বাচিত করা হয়েছে এবং তাদের পাঠানো গানগুলো ‘বাংলার গায়েন’-এর ফেসবুক পেইজে আপলোড করবার মাধ্যমে ১৪৫১ জন প্রতিযোগীর গানগুলো বিচারকদের ‘ইয়েস-নো’ কার্ড এর ভিত্তিতে মূল্যায়ন করে প্রাথমিক বাছাই পর্বের জন্য ৩০০জন প্রতিযোগীকে নির্বাচন করা হয়েছে। ৩০০ জন প্রতিযোগীর কাছ থেকে পুনরায় অনলাইনে ভিডিও আহ্বান করা হয় এবং সেখান থেকে সেরা ১০০ জন নির্বাচিত হয়। সেরা ১০০ প্রতিযোগীকে নিয়ে শুরু হয় বাংলার গায়েন-এর স্টুডিও রাউন্ড।

পরবর্তীতে ১০০ থেকে ৫০, ৫০থেকে ৩০, এভাবেই ধাপে ধাপে গ্র্যান্ড ফিনালে’র দিকে এগিয়ে গিয়েছে বাংলার গায়েন-এর প্রতিযোগিতা। উল্লেখ্য বাংলার গায়েন এর আয়োজনে প্রতিযোগী হিসেবে দেশের বিভিন্ন জেলার পাশাপাশি দেশের বাহির হতেও বাংলা ভাষাভাষীর মানুষ এতে অংশ নেন। ‘বেঙ্গল সিমেন্ট নিবেদিত বাংলার গায়েন’-এর পুরো আয়োজনে বিচারক হিসেবে সুনিপুণ দক্ষতার সাথে বিচারকার্য সম্পন্ন করছেন- দেশ বরণ্য সংগীতশিল্পী এস আই টুটুল, জাতীয় চলচ্চিত্র পুরষ্কার প্রাপ্ত খ্যাতিমান সংগীত পরিচালক শওকত আলী ইমন এবং সংগীত পরিচালক ও কণ্ঠশিল্পী ইবরার টিপু। ‘বাংলার মাটির সুরকে এক অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যাবে বাংলার গায়েন এর বিজয়ীরা’-এই প্রত্যয়েই ‘বেঙ্গল সিমেন্ট নিবেদিত বাংলার গায়েন’ এর আয়োজন করেছে আরটিভি।

প্রযোজক মাসুদুজ্জামান সোহাগ। ২ ফেব্রুয়ারি গ্র্যান্ড-ফিনালের জমাকালো আয়োজনের মাধ্যমে পর্দা নামবে বাংলার গায়েন-এর। পর্যায়ক্রমে ধাপে ধাপে ‘বেঙ্গল সিমেন্ট নিবেদিত বাংলার গায়েন’ এর গ্র্যান্ড ফাইনাল রাউন্ড অনুষ্ঠিত হলেও ব্লাইন্ড অডিশন, লালন স্মৃতিচারণে বিশেষ পর্ব এবং মৌলিক গানের বিশেষ পর্ব ছিলো দর্শকদের আকর্ষনের কেন্দ্রবিন্দু।মৌলিক গানের পর্বে বাংলার গায়েন এর সম্মানিত ৩বিচারক দেশ বরণ্য গীতিকারের লেখা গান নিজেদের কম্পজিশনে তৈরি করে তা উপহার দেন প্রতিযোগীদের গাইবার জন্য। জীবনের প্রথম মৌলিক গান চমৎকার ভাবে উপস্থাপন করে সেরা ৭জন প্রতিযোগী উত্তীর্ণ হয় গ্র্যান্ড ফিনালের গালা রাউন্ডে। গ্র্যান্ড ফিনাল এর পুরো আয়োজন হবে চমকপ্রদ। চূড়ান্ত প্রতিযোগিতার এই পর্বে সাত ফাইনালিস্টের সাথে কন্ঠ মেলাবেন দেশের তরুণ প্রজন্মের জনপ্রিয় সাত সঙ্গীতশিল্পী-পারভেজ সাজ্জাদ, ঐশী, সন্দীপন, লায়লা, রাজীব, পুলক এবং সাব্বির। সংগীত পরিচালক শওকত আলী ইমন, সঙ্গীতশিল্পী এস.আই.টুটুল ও সংগীত পরিচালক ইবরার টিপুর সাথে সঙ্গীতশিল্পী সালমা এবং লিজার কন্ঠে বাংলার গায়েন এর থিম সং পরিবেশনার মাধ্যমে শুরু হবে গ্র্যান্ড-ফিনালের জমাকালো আয়োজনের এবং সমাপ্তি হবে ফলাফল ঘোষণা এবং আতশবাজি প্রদর্শনীর মাধ্যমে।

বাংলার গায়েন এর প্রতিযোগীদের দেশের আইকন করে গড়ে তুলবার এবং বাংলার গায়েন এর পরবর্তী আসর আয়োজনের আশা ব্যাক্ত করেছেন আরটিভি’র নির্বাহী পরিচালক সৈয়দ আশিক রহমান। পুরো আয়োজনে উপস্থাপনায় ছিলেন শান্তা জাহান। আয়োজনটির ড্রেস পার্টনার হিসেবে ছিলো ফ্যাশন হাউজ আনজারা, আর্ট, ঙ২ এবং রঙ বাংলাদেশ। পাশাপাশি মেকআপ পার্টনার হিসেবে রেড বিউটি পার্লার এন্ড সেলুন এবং ম্যাগাজিন পার্টনার হিসেবে ছিলো লুক@মি।

‘বেঙ্গল সিমেন্ট নিবেদিত বাংলার গায়েন’ এর জমকালো গ্র্যান্ড ফিনালে দেখতে চোখ রাখুন ২ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার ঠিক রাত ৮টায় আরটিভি’র পর্দায়।

এম

RTV Drama
RTVPLUS