• ঢাকা শুক্রবার, ১৮ জানুয়ারি ২০১৯, ৫ মাঘ ১৪২৫

নির্বাচনের সংবাদ সংগ্রহে ইসির ১২ নির্দেশনা

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ২২ ডিসেম্বর ২০১৮, ২১:৫৭ | আপডেট : ২৩ ডিসেম্বর ২০১৮, ১১:১৯
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে নির্বাচন কেন্দ্র থেকে কিভাবে নির্বাচনি পরিবেশের শৃঙ্খলা বজায় রেখে সাংবাদিকরা ভোটের সংবাদ সংগ্রহ করবেন, সে ব্যাপারে ১২টি নির্দেশনা দিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

ভোট কেন্দ্রে সাংবাদিকরা যাতে নির্বিঘ্নে তথ্য সংগ্রহ ও প্রচার করতে পারেন সেজন্য এই নীতিমালা মেনে সংবাদ সংগ্রহ করতে আহ্বান জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

শনিবার নির্বাচন কমিশনের জনসংযোগ অধিশাখার যুগ্ম সচিব এস এম আসাদুজ্জামান স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এই নীতিমালা জারি করা হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, নির্বাচন কমিশনের অনুমোদিত ব্যক্তিই ভোট কেন্দ্রে প্রবেশ করতে পারবেন। সাংবাদিকদের তথ্য সংগ্রহের জন্য নির্বাচন কমিশন কার্ড প্রদান করবেন। সাংবাদিক ও পর্যবেক্ষকগণ নির্বাচন কমিশনের অনুমোদিত এবং অনুমোদন সূচক স্টিকার যুক্ত যানবাহন ব্যবহার করতে পারবেন। তবে মোটরসাইকেলে কোনও স্টিকার ইস্যু করা হবে না।

ইসির পক্ষ থেকে সাংবাদিকদের যে সব নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে তা হলো-

১. নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে প্রদত্ত বৈধ কার্ডধারী সাংবাদিক সরাসরি ভোট কেন্দ্রে প্রবেশ করতে পারবেন। ভোট কেন্দ্রে প্রবেশের পর প্রিজাইডিং অফিসারকে অবহিত করে ভোটগ্রহণ কার্যক্রমের তথ্য সংগ্রহ, ছবি তোলা এবং ভিডিও ধারণ করতে পারবেন। তবে কোনও ক্রমেই গোপন কক্ষের ছবি সংগ্রহ কিংবা ধারণ করতে পারবেন না।

২. একই সাথে একাধিক মিডিয়ার সাংবাদিক একই ভোট কক্ষে প্রবেশ করতে পারবেন না।

৩. ভোট কক্ষের ভিতর হতে কোনোভাবেই সরাসরি সম্প্রচার করা যাবে না।

৪. ভোট কেন্দ্রের ভিতর হতে সরাসরি সম্প্রচার করতে হলে ভোট কক্ষ হতে নিরাপদ দূরত্বে গিয়ে তা করতে হবে। কোনোক্রমেই ভোটগ্রহণ কার্যক্রমে বাধার সৃষ্টি করা যাবে না।

৫. সাংবাদিকগণ ভোট গণনা কক্ষে ভোট গণনা দেখতে পারবেন, তবে সরাসরি সম্প্রচার করতে পারবেন না।

৬. ভোট কক্ষ হতে ফেসবুকসহ কোনও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সরাসরি প্রচার করা যাবে না।

৭. ভোট কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ কার্যক্রম ব্যাহত হয় এমন সকল কাজ থেকে বিরত থাকবেন।

৮. ভোটকেন্দ্রে সাংবাদিকগণ প্রিজাইডিং অফিসারের আইনানুগ নির্দেশ মেনে চলবেন।

৯. নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের কাজে হস্তক্ষেপ করতে পারবেন না।

১০. কোনও প্রকার নির্বাচনী উপকরণ স্পর্শ বা অপসারণ করতে পারবেন না।

১১. নির্বাচনে সংবাদ সংগ্রহের সময় প্রার্থী বা কোনও রাজনৈতিক দলের পক্ষে বা বিপক্ষে যে কোনও ধরনের প্রচারণা বা বিদ্বেষমূলক প্রচারণা হতে বিরত থাকবেন।

১২. নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য নির্বাচনী আইন ও বিধিবিধান মেনে চলবেন।

বিবৃতিতে বলা হয়, উপরে উল্লেখিত নির্দেশ পালন না করলে বা তার ব্যত্যয় ঘটলে উক্ত ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে নির্বাচনী আইন, বিধি ও কোড অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আরসি/পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়