Mir cement
logo
  • ঢাকা শনিবার, ১২ জুন ২০২১, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

আর কত বাড়বে স্বর্ণের দাম?

স্বর্ণ

বিশ্বজুড়ে স্বর্ণের দাম বাড়ায় গত মে মাসে দেশের বাজারে দুই দফায় দাম বেড়েছে। তবে বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দামের ঊর্ধ্বগতি এখনও থামেনি। ফলে হুটহাট করে ফের স্বর্ণের দাম বাড়ার সম্ভাবনা থেকেই যাচ্ছে। কারণ গত সপ্তাহ শনিবার পর্যন্ত বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দাম কমতে থাকলেও হুট করে শুক্রবার স্বর্ণের দাম বেড়ে যায়। স্বর্ণের দামের এই ঊর্ধ্বগতি কোথায় গিয়ে থামতে পারে তা এখন নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছে না।

করোনাভাইরাস সংক্রমণের সময় অর্থনীতি যখন বিপর্যস্ত, প্রবৃদ্ধি ঋণাত্মক, মন্দায় বেশির ভাগ দেশ, আয় কমে গেছে সাধারণ মানুষের, ঠিক তখনও লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে স্বর্ণের দাম। স্বর্ণ মানুষের নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য নয়, এরপরও বিলাসী এই পণ্যের দাম লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে।

বিশ্ববাজারে সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস প্রতি আউন্স স্বর্ণের দাম ২০ ডলারের ওপর বাড়েছে। স্বর্ণের সঙ্গে গত এক সপ্তাহে রুপা ও প্লাটিনামের দামেও বেশ অস্থিরতা দেখা গেছে।

ঈদুল ফিতরের আগে স্বর্ণের দাম কিছুটা কমতে থাকলেও ঈদের পরে এক মাসেই স্বর্ণের দাম ঊর্ধ্বমুখী ধারায় থাকে। এতে দেশের বাজারে বাধ্য হয়ে স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা দাম বাড়িয়ে দেন। মে মাসে দুই দফায় ভরিতে স্বর্ণের দাম ৪ হাজার ৩৭৪ টাকা বাড়ায় বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি (বাজুস)।

সর্বশেষ গত ২৩ মে থেকে স্বর্ণের নতুন দাম কার্যকর হয়েছে। নতুন দাম অনুযায়ী, বর্তমানে সব থেকে ভালো মানের বা ২২ ক্যারেটের প্রতি ভরি (১১ দশমিক ৬৬৪ গ্রাম) স্বর্ণ ৭৩ হাজার ৪৮৩ টাকা, ২১ ক্যারেটের স্বর্ণ ৭০ হাজার ৩৩৩, ১৮ ক্যারেটের স্বর্ণ ৬১ হাজার ৫৮৪ ও সনাতন পদ্ধতির প্রতি ভরি স্বর্ণ ৫১ হাজার ৬২ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

বাংলাদেশে যখন স্বর্ণের দাম বাড়ানো হয়, তখন বিশ্ববাজারে প্রতি আউন্স স্বর্ণের দাম ছিল ১ হাজার ৮৮১ ডলার। গত সপ্তাহের লেনদেন শুরু হওয়ার পর তা বেড়ে ১ হাজার ৯০৩ দশমিক ২০ ডলারে উঠে। গত বুধ ও বৃহস্পতিবার বড় দরপতন হলেও পরবর্তী আউন্স স্বর্ণের দাম ১ হাজার ৮৭০ ডলারে নেমে আসে। ফলে সপ্তাহ শেষে স্বর্ণের বড় দরপতন হবে এমন ধারণা করা হচ্ছিল। কিন্তু শেষ কার্যদিবস শুক্রবার ঘুরে দাঁড়ায় স্বর্ণের বাজার। একদিনে প্রতি আউন্স স্বর্ণের দাম বাড়ে ২০ দশমিক ২০ ডলার। এতে সপ্তাহ শেষে প্রতি আউন্স স্বর্ণের দাম দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৮৯০ দশমিক ৮৫ ডলার। এতে সপ্তাহের ব্যবধানে স্বর্ণের দাম কমেছে দশমিক ৬২ শতাংশ বা ১২ দশমিক ৩৫ ডলার।

স্বর্ণের পাশাপাশি গত সপ্তাহে কমেছে রুপার দাম। সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস ১ দশমিক ২০ শতাংশ দাম বাড়ার পরও সপ্তাহ শেষে রুপার দাম কমেছে দশমিক ৩৬ শতাংশ। এতে প্রতি আউন্স রুপার দাম দাঁড়িয়েছে ২৭ দশমিক ৭৮ ডলারে। একই অবস্থা দামি ধাতু প্লাটিনামের দাম গত সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে বেড়েছে দশমিক ৭১ শতাংশ। এরপরও সপ্তাহ শেষে এ ধাতুটির দাম কমেছে ১ দশমিক শূন্য ৪ শতাংশ। এতে প্রতি আউন্স প্লাটিনামের দাম দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ১৬৫ দশমিক ২৭ ডলারে।

এফএ

RTV Drama
RTVPLUS