Mir cement
logo
  • ঢাকা সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১, ১১ শ্রাবণ ১৪২৮

মোবাইল ব্যাংকিংয়ে এক মাসে গ্রাহক নেই ৬৩ লাখ

প্রতীকী ছবি

দেশে মোবাইল ব্যাংকিং পরিষেবা চালু হওয়ার পর থেকে ক্রমাগত গ্রাহক বাড়ছে। তবে চলতি বছরের গত এপ্রিলে আগের মাসের থেকে এ খাতের নিবন্ধিত গ্রাহক ৬৩ লাখ ২০ হাজার কমেছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের মোবাইল আর্থিক সেবার (এমএফএস) এপ্রিল মাসের হালনাগাদ পরিসংখ্যানের তথ্য অনুযায়ী, দেশে ১৫টি অনুমোদিত প্রতিষ্ঠান এমএফএস সেবা প্রদান করছে। গত মার্চে এসব প্রতিষ্ঠানে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের গ্রাহক সংখ্যা ছিল ১০ কোটি ২৭ লাখ ৯৬ হাজার। কিন্তু পরের মাসে এপ্রিলের শেষ দিকে মাত্র এক ম্যাসের ব্যবধানে এই সংখ্যা নামে ৯ কোটি ৬৪ লাখ ৭৬ হাজারে। হিসেব অনুযায়ী এক মাসের ব্যবধানে গ্রাহক কমেছে ৬৩ লাখ ২০ হাজার।

এ বিষয়ে সংশ্লিষ্টরা বলছেন, প্রতিষ্ঠানগুলোর তথ্যের ভিত্তিতেই এই প্রতিবেদন করা হয়েছে। কিন্তু এই বিপুল সংখ্যক গ্রাহক কমার বিষয়টি অস্বাভাবিক। বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্য তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে।

এদিকে ধারণা করা হচ্ছে, শিওরক্যাশের সেবা বন্ধ হওয়ার জন্য কয়েকটি ব্যাংকের গ্রাহক সংখ্যা কমেছে। ইউক্যাশ বন্ধ করে চালু করা হয়েছে ‘উপায়’। ইউক্যাশের যেসব গ্রাহক স্থানান্তর করে উপায়-এ আনা হয়েছে তাদের তথ্য এখনো পাওয়া যায়নি। এ কারণে নিবন্ধিত গ্রাহক কমতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র সিরাজুল ইসলাম জানিয়েছেন, ইউনাইটেড কর্মাশিয়াল ব্যাংকের এমএফএস সেবা ‘ইউক্যাশ’ ছিল। তারা সেবাটি বন্ধ করে নতুন নামে ‘উপায়’ সেবা চালু করেছে। ইউক্যাশের গ্রাহক যে উপায়-এ এসেছে তাদের ডাটাগুলো এখনো সংযুক্ত হয়নি। এ কারণে গ্রাহক কম দেখাচ্ছে। তবে এটি ‍যুক্ত হলে নিবন্ধিত গ্রাহক সংখ্যা ফের বাড়বে।

এদিকে এমএফএসের নিয়ম অনুযায়ী, টানা তিন মাসে গ্রাহক যদি একবারও লেনদেন না করে থাকে তাহলে এমন হিসাবকে নিষ্ক্রিয় হিসাব বলে গণ্য করা হয়।

এসআর/

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS