logo
  • ঢাকা সোমবার, ০৬ এপ্রিল ২০২০, ২৩ চৈত্র ১৪২৬

করোনা আপডেট

  •     গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে, আক্রান্ত হয়েছে ৩৫ জন, এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা ১২ মোট আক্রান্ত ১২৩, তবে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত কেউই সুস্থ হননি: আইইডিসিআর। ভারতে ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৩২, মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ১১৮ জনে, আক্রান্ত মোট ৪২৯৮: স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। বিশ্বব্যাপী মৃত্যু ৬৯ হাজার ৪৫৬ জন এবং আক্রান্তের ১২ লাখ ৭৩ হাজার ৭০৯ জন, সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২ লাখ ৬২ হাজার ৪৮২ জন। সবচেয়ে বেশি মৃত্যু ইতালিতে ১৫ হাজার ৮৮৭, আক্রান্ত এক লাখ ২৮ হাজার ৯৩৮ জন, দ্বিতীয় অবস্থানে স্পেন। এখন পর্যন্ত মৃত্যু ১২ হাজার ৬৪১ জনের এবং আক্রান্ত ১ লাখ ৩১ হাজার ৬৪৬ জন: ওয়ার্ল্ডমিটার।

প্রবৃদ্ধি অর্জনে চীনকেও ছড়িয়ে যাবে বাংলাদেশ: বিশ্বব্যাংক

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ১০ জানুয়ারি ২০২০, ১৪:১১ | আপডেট : ১০ জানুয়ারি ২০২০, ১৫:১৯
প্রবৃদ্ধি অর্জনে চীনকেও ছড়িয়ে যাবে বাংলাদেশ বিশ্বব্যাংক
ফাইল ছবি
বাংলাদেশ চলতি অর্থবছর বৈশ্বিক জিডিপি প্রবৃদ্ধি অর্জনে ভারত, পাকিস্তান, এমনকি শক্তিশালী অর্থনীতির দেশ চীনকেও ছাড়িয়ে যাবে পূর্বাভাস দিয়েছে বিশ্বব্যাংক।  

চলতি ২০১৯/২০ অর্থ-বছরে বাংলাদেশের  প্রবৃদ্ধি ৭ দশমিক ২ শতাংশ  হবে বলে আভাস দেয়া হয়েছে। আর আগামী ২০২০/ ২১ অর্থবছরে যা আরও বেড়ে ৭ দশমিক ৩ শতাংশ হতে পারে বলে বলা হয়েছে।

গত বুধবার (৮ জানুয়ারি) বিশ্বব্যাংকের ওয়েবসাইটে প্রতিবেদনটি প্রকাশ করা হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোতে ২০২০ সালে জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৫ দশমিক ৫ শতাংশ হবে। ভারত ও শ্রীলঙ্কায় দেশজ বিনিয়োগ ও দেশজ চাহিদা বাড়ায় উৎপাদনও বাড়বে। ব্যবসা-বাণিজ্যের পরিবেশ উন্নত হওয়ায় এবং অবকাঠামো খাতে বিনিয়োগ বাড়ার সুবিধা নিয়ে বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তানে জিডিপি প্রবৃদ্ধি হার বাড়ার পূর্বাভাস দিয়েছে বিশ্বব্যাংক।

ভারতে ব্যাংক নয় এমন আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে তেমন বিনিয়োগ আসে না, যে অবস্থা আরও দীর্ঘমেয়াদী হবে। ফলে ২০১৯/২০ অর্থ-বছরে (৩১ মার্চ) দেশটির প্রবৃদ্ধির গতি কিছুটা কমে ৫ শতাংশ হবে। তবে পরবর্তী অর্থ-বছরে তা আবার বেড়ে ৫ দশমিক ৮ শতাংশ হবে।

পাকিস্তানে ২০১৯/২০ অর্থ বছরে (জুন ৩০) জিডিপি প্রবৃদ্ধি ২ দশমিক ৪ শতাংশ হবে। পরবর্তী অর্থবছরে তা বেড়ে ৩ শতাংশ হতে পারে।

বিশ্বব্যাংক বলছে, চীনের সঙ্গে বাণিজ্যযুদ্ধে জড়িয়ে যুক্তরাষ্ট্রের জিডিপিতে যে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে, এর জেরে তাদের প্রবৃদ্ধির হার কিছুটা কমে ১ দশমিক ৮ শতাংশ হবে।

২০ ডিসেম্বর ২০১৯ সাল পর্যন্ত পাওয়া তথ্য বিশ্লেষণ করে বিশ্বব্যাংক এ প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

বিশ্বব্যাংকের প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, দক্ষিণ এশিয়ায় বাংলাদেশেই সর্বোচ্চ প্রবৃদ্ধি হবে বলে মনে করা হচ্ছে। তবে ভারতের প্রবৃদ্ধিও বাড়বে। চলতি অর্থবছরে দেশটির জিডিপির প্রবৃদ্ধি বেড়ে দাঁড়াবে ৫ দশমিক ৮ শতাংশ, যা গত অর্থবছরে ছিল ৫ শতাংশ। পাকিস্তানের প্রবৃদ্ধি কমে এবারে ২ দশমিক ৪ শতাংশে নেমে আসবে। এ ছাড়া শ্রীলঙ্কায় ৩ দশমিক ৩, নেপালে ৬ দশমিক ৪, মালদ্বীপে সাড়ে ৫, ভুটানে ৫ দশমিক ৬ এবং আফগানিস্তানে ৩ শতাংশ হারে প্রবৃদ্ধি হবে।

বিশ্বব্যাংকের প্রতিবেদন অনুযায়ী, এবারে সারা বিশ্বে ক্যারিবীয় দেশ গায়ানাতেই সর্বোচ্চ ৮৬ দশমিক ৭ শতাংশ জিডিপি প্রবৃদ্ধি হতে পারে। এই প্রবৃদ্ধি অনেকটা অবিশ্বাস্য মনে হতে পারে। গায়ানার অর্থনীতির ভিত্তি বেশ ছোট বলেই তা সম্ভব। বাংলাদেশের ওপরে থাকা রুয়ান্ডা ও জিবুতির প্রবৃদ্ধি হবে যথাক্রমে ৮ দশমিক ১ ও সাড়ে ৭ শতাংশ।

এমকে

corona
দেশ আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ ১২৩ ৩৩ ১২
বিশ্ব ১২৮৮৩৭২ ২৭০২৪৯ ৭০৪৮২
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • অর্থনীতি এর সর্বশেষ
  • অর্থনীতি এর পাঠক প্রিয়