বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের জন্য হোন্ডার ‘ইয়েস অ্যাওয়ার্ড’ প্রোগ্রাম

প্রকাশ | ০৭ আগস্ট ২০১৯, ১২:৫২ | আপডেট: ০৭ আগস্ট ২০১৯, ১৩:০১

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট

বাংলাদেশের বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের উৎসাহিত করতে প্রচলন করা হয়েছে হোন্ডা ইয়েস (ওয়াই-ই-এস) অ্যাওয়ার্ড প্রোগ্রাম। হোন্ডা ফাউন্ডেশন (এইচওএফ) বাংলাদেশ হোন্ডা প্রাইভেট লিমিটেডের (বিএইচএল) মাধ্যমে জাপান ইন্টারন্যাশনাল কোঅপারেশন সেন্টারের (জেআইসিই) সহযোগিতায় আগস্ট মাস থেকে বাংলাদেশে হোন্ডা ইয়েস (ইয়াং ইঞ্জিনিয়ার অ্যান্ড সায়েন্টিস্টস) অ্যাওয়ার্ড প্রোগ্রাম শুরু করে। ঢাকার ওয়েস্টিন হোটেলে সম্প্রতি অনুষ্ঠিত হয় এই অ্যাওয়ার্ড প্রোগ্রামের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন হোন্ডা ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আকিহিরো কামিওকা, এশিয়া প্যাসিফিক ইউনিভার্সিটির উপাচার্য প্রফেসর জামিলুর রেজা চৌধুরী, বাংলাদেশ হোন্ডা প্রাইভেট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী হিমিহিকো কাতসুকি, রাজশাহী ইউনিভার্সিটি অব ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজির (রুয়েট) উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. রফিকুল ইসলাম শেখ, জাইকার মহাব্যবস্থাপক হিতোশি হিরাতা, একমাত্রা সোসাইটির হিরোকি ওয়াতানাবে, বাংলাদেশ হোন্ডা প্রাইভেট লিমিটেডের অর্থ ও বাণিজ্য বিভাগের প্রধান শাহ মুহাম্মদ আশেকুর রহমান এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিনিধিরা।

এশীয় দেশগুলোর ভবিষ্যৎ উন্নয়ন ত্বরান্বিত করতে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি খাতের ভবিষ্যৎ নেতৃত্বকে উৎসাহিত করাই এই পুরস্কারের প্রধান লক্ষ্য। ইয়েস অ্যাওয়ার্ড প্রোগ্রামের উদ্দেশ্য হলো, ভবিষ্যৎ উন্নয়নে নেতৃত্ব দেয়ার মতো উদ্ভাবনী দক্ষতাসম্পন্ন ছাত্রদের খুঁজে বের করে তাদের অনুপ্রাণিত করা। যারা সৃষ্টিশীল প্রযুক্তির উদ্ভাবন ও বাস্তবায়নের মাধ্যমে মানবসভ্যতার যথার্থ উপলব্ধিতে সহায়তা করার পাশাপাশি মানুষ ও তার চারপাশের পরিবেশের মধ্যে ভারসাম্য বজায় রক্ষা করবে।

উল্লেখ্য, এই পুরস্কার কর্মসূচির শুরু ২০০৬ সালে ভিয়েতনামে। এরপর এশিয়ার অন্যান্য দেশ যেমন- ভারত, কম্বোডিয়া, লাওস ও মিয়ানমারে প্রচলন করা হয়েছে।

পি