বিকেল ৫টায় বিজিএমইএ ভবন সিলগালা

প্রকাশ | ১৬ এপ্রিল ২০১৯, ১৬:১০

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
বিজিএমইএ ভবন থেকে সরিয়ে নেয়া হচ্ছে মালপত্র

রাজধানীর হাতিরঝিল লেকের পাড়ে অবৈধভাবে নির্মাণ করা বিজিএমইএ ভবন থেকে সরঞ্জাম সরাতে বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়েছে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)। এরপর ভবনটি সিলগালা করে দেয়া হবে।

মঙ্গলবার দুপুর আড়াইটার দিকে রাজউকের পরিচালক (প্রশাসন) খন্দকার ওলিউর রহমান এ তথ্য জানান।

সকালে ১৬ তলা ভবনটি ভাঙতে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বিপুল সদস্য নিয়ে ভবনটির সামনে অবস্থান নেয় রাজউক কর্মকর্তারা। পরে ভবনে যেসব প্রতিষ্ঠান আছে তারা সরঞ্জাম সরাতে সময় চাইলে প্রথমে তাদের দুই ঘণ্টা সময় দেয়া হয়। এই সময়ের মধ্যে মালামাল সরাতে ব্যর্থ হলে পরে আরও এক ঘণ্টা সময় বাড়ানো হয়। দ্বিতীয় দফাতেও মালামাল পুরোপুরি না সরায় বিকাল পর্যন্ত সময় দেয়া হয়।

রাজউক পরিচালক ওয়ালিউর রহমান সাংবাদিকদের জানান, বিকাল পাঁচটার মধ্যে বিজিএমইএ ভবনের মালামাল সরিয়ে নেওয়ার সময় দেয়া হয়েছে। এরপর ভবনটি সিলগালা করে দেবে রাজউক।

তিনি বলেন, ভবন সিলগালা করার পর বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হবে। খুলে নেয়া হবে গ্লাসগুলো। এরপর ডিনামাইট ডেমোলেশনের’ মাধ্যমে ভবনটি ভেঙে ফেলা হবে।

জমির স্বত্ব না থাকা ও জলাধার আইন লঙ্ঘন করায় হাতিরঝিল প্রকল্প এলাকায় বিজিএমইএর বর্তমান ভবনটি ভেঙে ফেলার নির্দেশনা আসে উচ্চ আদালত থেকে। সেজন্য ভবনটি ছাড়তে গত ১২ এপ্রিল পর্যন্ত বিজিএমইএ কর্তৃপক্ষকে সময় দিয়েছিল আদালত।

২০১১ সালের ৩ এপ্রিল হাইকোর্ট এক রায়ে ওই ভবনটিকে ‘হাতিরঝিল প্রকল্পে একটি ক্যানসারের মতো’উল্লেখ করে রায় প্রকাশের ৯০ দিনের মধ্যে ভেঙে ফেলতে নির্দেশ দেন। এর বিরুদ্ধে বিজিএমইএ লিভ টু আপিল করে, যা ২০১৬ সালের ২ জুন আপিল বিভাগে খারিজ হয়। সর্বশেষ ১২ এপ্রিলের মধ্যে ভবনটি সরিয়ে নিতে সময় দেয় আদালত।

নির্দিষ্ট সময় পার হওয়ার পর আদালতের নির্দেশনা বাস্তবায়নে নামে রাজউক।

এস