DMCA.com Protection Status
  • ঢাকা রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০১৯, ৮ বৈশাখ ১৪২৬

পূর্বাচলের ৩০ একর জায়গা বাণিজ্যমেলার জন্য অপ্রতুল: বাণিজ্যমন্ত্রী

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৭:৩৫ | আপডেট : ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৭:৪৮
পূর্বাচলে ৩০ একর জায়গা বাণিজ্যমেলার জন্য অপ্রতুল। তবে সেখানে সারা বছর অন্যান্য মেলা চলবে। আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলা সেখানে আয়োজন করা যাবে না। তাই এখন থেকে আমাদের পদক্ষেপ নিতে হবে। বললেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশী। 

শনিবার আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলার ২৪তম আসরের সমাপনী অনুষ্ঠানে বাণিজ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

টিপু মুনশি বলেন, বাণিজ্যমেলায় এবারও বিক্রি-রফতানি আদেশ ভালো হয়েছে। আমাদের মেলার চাহিদা যেভাবে বাড়ছে, এখানে মেলা করতে হিমশিম খেতে হয়। আগামীতে পূর্বাচলে ৩০ একর জায়গায় এ মেলা আয়োজন করা সম্ভব কি-না, তা এখন থেকেই ভাবতে হবে। আগামী ১০ থেকে ১৫ বছর পর মেলার চাহিদা আরও বাড়বে।

তিনি আরও বলেন, এ মেলায় মানুষের উপস্থিতি প্রায় অর্ধকোটি পার হয়েছে। বেচাকেনাও ভালো হয়েছে। আর বিদেশের রফতানি অর্ডারও পেয়েছে প্রায় ২০০ কোটি টাকার কাছাকাছি। তো সব বিবেচনাতেই যা খবর, তাতে আমরা দেখেছি যে, এবারের মেলাটা খুব সফল হয়েছে। এটা পরম্পরা। আগে থেকে ভালো হতে হতে এটা বাড়ছে।

টিপু মুনশি বলেন, আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলার ২৪তম আসরে প্রায় ২০০ কোটি টাকা রফতানি আদেশ পেয়েছে বাংলাদেশি কোম্পানিগুলো। ২৩তম আসরে ১৬৫ কোটি ৯৬ লাখ টাকার রফতানি আদেশ আসে। সে হিসেবে এ বছর রফতানি আদেশ বেড়েছে ৩৫ কোটি টাকা।

বাণিজ্যমন্ত্রী আরও বলেন, এবারের মেলায় সবচেয়ে লক্ষ্যণীয় বিষয় হলো আমাদের দেশি পণ্যের চাহিদা বেড়েছে। বায়াররা আমাদের পণ্যে আকৃষ্ট হচ্ছে। এর ফলে আগামীতে আমাদের আমদানি কমে যাবে। এছাড়া রফতানিতে আমাদের পোশাক খাতের নির্ভরতা কমিয়ে অন্যান্য পণ্য রফতানি বাড়াতে হবে। পাশাপাশি চিন্তা ও চেতনায় আমাদের আরও এগোতে হবে।

এসময় অনুষ্ঠানে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি তোফায়েল আহমেদ, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত সচিব এস এম রেজওয়ান হোসেন এবং রফতানি উন্নয়ন ব্যুরোর ভাইস চেয়ারম্যান বিজয় ভট্টাচার্যসহ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এমসি/ এমকে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়