logo
  • ঢাকা শনিবার, ২৪ আগস্ট ২০১৯, ৯ ভাদ্র ১৪২৬

বাণিজ্য মেলায় নারীদের ভিড় অ্যালুমিনিয়ামের প্যাভিলিয়নে

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ২৩ জানুয়ারি ২০১৯, ১৭:২০
ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার ২৪তম আসরে অন্যান্য স্টল-প্যাভিলিয়নের চেয়ে অ্যালুমিনিয়ামের গৃহস্থালি (ক্রোকারিজ) পণ্যের প্রতি একটু বেশিই ভিড় দেখা গেছে। 

bestelectronics
ক্রেতারা জানালেন, বাজারের তুলনায় পণ্যের সমারোহ বেশি থাকায় এসব স্টল-প্যাভিলিয়নে আসছেন তারা। তবে দাম ও মান নিয়ে আছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া।

বুধবার সকালে বাণিজ্য মেলা ঘুরে দেখা যায়, অ্যালুমিনিয়ামের দোকানগুলোতে স্তরে স্তরে সাজানো তৈজস। নতুন নতুন ডিজাইনের বৈচিত্র্য নজর কাড়ছে দর্শনার্থীদের। গৃহস্থালির জিনিসপত্র হওয়ায় আনাগোনা বেশি নারীদেরই। এক ছাদের নিচে নানা ধরণের বাসন-কোসনের সমারোহ থাকায় তাদের আগ্রহ বেশি। নানান বয়সের ক্রেতারা প্রয়োজন অনুযায়ী দেখছেন জিনিষপত্র।

মেলায় ক্রেতা-দর্শনার্থীদের অন্যতম আগ্রহের পণ্যের মধ্যে আছে প্রেসার কুকার, রাইস কুকার, ইন্ডাকশন চুলা, নন স্টিক ফ্রাইপ্যানসহ গৃহস্থালির দেশ-বিদেশি সামগ্রী। মাইক্রোওয়েভ ওভেন, প্রেসার কুকার, ওয়াশিংমেশিনসহ গৃহস্থালির ১০টি বা ২০টি পণ্যের প্যাকেজে মূল্যছাড় ঘোষণা করেন আমদানিকারকরা। কিয়াম, এসকেবি, টপার, নোয়া, শরীফ মেলামাইনের কুক স্টারসহ দেশীয় কোম্পানিগুলোও মূল্যছাড়সহ নানা উপহার ঘোষণা করেছে নিজেদের পণ্যে।

বাণিজ্য মেলায় অ্যালুমিনিয়াম পণ্য, নন-স্টিক কড়াই, সসপেনের পাশাপাশি তিন স্তরের স্টিলের গৃহস্থালি পণ্য নিয়ে এসেছে এসকেবি কুকওয়্যার। দুই বছর ধরে এসএ স্টিলের তৈরি ব্যয়বহুল এসব পণ্য বাজারজাত করছে এসকেবি।

বিক্রয় কর্মীরা বলছেন, বিশেষ ক্ষেত্রে মূল্যছাড়সহ সব ধরণের পণ্য বিক্রি হচ্ছে পাইকারি দামে।

দর্শনার্থীরা বলেন, বিভিন্ন ধরনের বিভিন্ন ডিজাইনের জিনিসপত্র দেখা যায়। তবে দাম একটু বেশি। অনেক দর্শনার্থী বলেন, এখান থেকে আসল পণ্য পাওয়া সম্ভব বলে তারা মেলায় আসেন।

বিক্রেতারা বলছেন, বেশিরভাগ পণ্য পাইকারি দামে বিক্রি করছেন তারা। সেই সঙ্গে আছে নির্দিষ্ট পণ্যে মূল্যছাড়। তাই ক্রেতাদের আগ্রহ বেশি। কারো কারো মত, শুধু বিক্রি নয়, ক্রেতাদের কাছে নিজেদের নতুন পণ্যের পরিচয় করানোটাই আসল উদ্দেশ্য।

তবে অনেকের অভিযোগ, নামে আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা হলেও, অনেক স্টল-প্যাভিলিয়নেই বিক্রি হচ্ছে নিম্নমানের অনেক পণ্য সামগ্রী। অনেক পণ্যসামগ্রী বিদেশি বলা হলেও তা দেশে তৈরি হচ্ছে। 

২৪তম আসরে বাংলাদেশ ছাড়াও ২৫টি দেশের ৫২টি প্রতিষ্ঠান মেলায় অংশ নিয়েছে। মেলার গেট ও বিভিন্ন স্টল প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত খোলা থাকছে। প্রাপ্ত বয়স্কদের প্রবেশের জন্য টিকিটের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৩০ টাকা এবং অপ্রাপ্ত বয়স্কদের জন্য ২০ টাকা। এবারই প্রথম মেলার টিকিট অনলাইনে পাওয়া যাচ্ছে।

এমসি/এসএস

bestelectronics bestelectronics
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়