DMCA.com Protection Status
  • ঢাকা শুক্রবার, ২৬ এপ্রিল ২০১৯, ১৩ বৈশাখ ১৪২৬

দিনে ৫ লাখ টাকা লেনদেন করা যাবে ‘নগদে’

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ০৪ নভেম্বর ২০১৮, ১২:৪২ | আপডেট : ০৪ নভেম্বর ২০১৮, ১৩:১৩
বিকাশ, রকেট, ইউক্যাশসহ বিদ্যমান মোবাইল ব্যাংকিং সেবাগুলোর মতোই আসছে আরেকটি মোবাইল ব্যাংকিং সেবা। ‘নগদ’ নামে বাংলাদেশ ডাক বিভাগের তত্ত্বাবধানে এটি পরিচালিত হবে। আগামী বছরের শুরুতে এই সেবা চালু হতে যাচ্ছে।

বর্তমানে মোবাইল ব্যাংকিং সেবায় একজন গ্রাহক দিনে দুই বারে সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা উত্তোলন এবং ১৫ হাজার টাকা জমা করতে পারেন। কিন্তু নতুন এই ’নগদ’ গ্রাহক পাবেন কয়েকগুণ বেশি লেনদেন সুবিধা।

এ সেবায় একজন গ্রাহক দিনে ১০ বারে আড়াই লাখ টাকা জমা এবং একই পরিমাণ টাকা উত্তোলন করতে পারবেন।

ডাক বিভাগের মহাপরিচালক সুশান্ত কুমার মন্ডল বলছেন, ‘নগদ’ কে মানুষের দোড়গোড়ায় পৌছে দিতে দেশজুড়ে প্রায় ১০ হাজার পোস্ট অফিস (ডাকঘর) অন্তর্ভূক্ত করার কাজ শুরু করেছে ডাক বিভাগ।

প্রাথমিকভাবে জেলা পর্যায়ের পোস্ট অফিসগুলোকে এবং পরবর্তীতে ইউনিয়ন ও গ্রাম পর্যায়ের শাখাগেুলোকে এই কার্যক্রমের আওতায় নিয়ে আসা হবে।

তিনি আরও বলেন, ডাক বিভাগের দেশব্যাপী বিস্তৃত অবকাঠামো এবং ৪০ হাজার দক্ষ জনশক্তি এ কাজে ভূমিকা রাখবে। দেশের প্রতিটি ডাকঘরে ‘নগদ’ এর সেবা পাওয়া যাবে। এজন্য  আলাদা করে ব্র্যান্ডিং ও প্রযুক্তি স্থাপনের কাজ চলছে।

বাংলাদেশ ডাক বিভাগ কয়েক দশক ধরে অর্থ আদান প্রদানের প্রধান মাধ্যম হিসাবে মানুষের দোরগোড়ায় সেবা দিয়ে আসছে। ডাক বিভাগ সময়ের বিবর্তনে নতুন প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করার ধারাবাহিকতায় ২০১০ সালে চালু হয় পোস্টাল ক্যাশ কার্ড এবং ইলেক্ট্রনিক মানি ট্রান্সফার সিস্টেম।

গত কয়েকবছর উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি সাধিত না হলে বিগত কয়েকমাস ধরে নতুন উদ্যম লক্ষ্য করা যাচ্ছে ডাক বিভাগের বিভিন্ন স্তরে।

জেলা পর্যায় থেকে নামের তালিকা তৈরি করতে গিয়ে ব্যাপক সাড়া পাওয়া যাচ্ছে জানিয়ে নগদের হেড অফ কর্পোরেট অ্যাফেয়ার্স মো: সোলায়মান আরটিভি অনলাইনকে বলেন, জেলা পর্যায়ের পোস্ট অফিসগুলো থেকে আমরা ইতিমধ্যেই আশাতীত সাড়া পেয়েছি। বিশেষ করে নতুন প্রযুক্তির ব্যাপারে এই আগ্রহ আমাদেরকে উদ্দীপ্ত করেছে অনেক বেশি।

তিনি বলেন, ডিজিটাল ফিনান্সিয়াল সার্ভিসের খুটিনাটি ও অ্যান্টি মানি লন্ডারিং নিয়ে কর্মশালায় অংশ নেয়ার জন্যে ইতোমধ্যেই সারা দেশ থেকে ২০০০ জনের তালিকা তৈরি করা হয়েছে। সরকারি এবং বেসরকারি এই মিলিত উদ্যোগ দেশের বিভিন্ন পোস্ট অফিসের কর্মচারীদের মধ্যে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার পেছনে ডাক বিভাগের প্রত্যক্ষ অবদান হিসেবে গণ্য করা হচ্ছে।

এসআর

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়