logo
  • ঢাকা বুধবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২১, ১৩ মাঘ ১৪২৭

রপ্তানি আয়ে ফের হোঁচট

Export, earnings, stumble, again
রপ্তানি আয়ে ফের হোঁচট
বিশ্বজুড়ে করোনা মহামারির কারণে ফের রপ্তানি আয়ে নেতিবাচক প্রভাব পড়ে। গত বছর এপ্রিলে রপ্তানি আয় নিম্নমুখী থেকে ক্রমশে ঊর্ধ্বমুখীর দিকে যাচ্ছিল। কিন্তু বছরের শেষ মাস ডিসেম্বরে রপ্তানি আয় কমার পাশাপাশি লক্ষ্যমাত্রা অর্জনেও ব্যর্থ হয়েছে।

জানা গেছে, ২০২০ সালের ডিসেম্বর মাসে পণ্য রপ্তানি থেকে ৩৩১ কোটি ডলার আয় করেছে বাংলাদেশ। ২০১৯ সালে ডিসেম্বর মাসের তুলনায় ৬ দশমিক ১১ শতাংশ কম। আর লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে কম ৬ দশমিক ১৩ শতাংশ। এই ধসের চলতি ২০২০-২১ অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর) গত ২০১৯-২০ অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় সার্বিক রপ্তানি কমেছে শূন্য দশমিক ৩৬ শতাংশ। লক্ষ্যের চেয়ে আয় কমেছে ২ দশমিক ২৫ শতাংশ।

রপ্তানিকারক ও অর্থনীতি বিশ্লেষকদের মতে, ইউরোপ-আমেরিকায় করোনা মহামারির দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হওযায় রপ্তানি আয় হোঁচর খেয়েছে।

নিট পোশাক শিল্প মালিকদের সংগঠন বিকেএমইএ’র সহ-সভাপতি মোহাম্মদ হাতেম বলেন, শীতের মৌসুমে করোনাভাইরাস সংক্রমণ বেড়ে যাওয়া বিশ্বের অনেকে দেশেই লকডাউন চলছে। এতে পণ্য কেনাবেচা কমেছে। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে পণ্য মজুদ রয়েছে যা আগামীতে রপ্তানি আদেশ আরও কমবে।

আজ মঙ্গলবার রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি) তথ্য অনুযায়ী, চলতি ২০২০-২১ অর্থবছরের প্রথমার্ধে (জুলাই-ডিসেম্বর) পণ্য রপ্তানি থেকে বাংলাদেশ ১ হাজার ৯২৩ কোটি ৩৪ লাখ (১৯.২৩ বিলিয়ন) ডলার আয় করেছে। এই ছয় মাসে লক্ষ্যমাত্রা ধরা ছিল ১ হাজার ৯৬৭ কোটি ৬০ লাখ ডলার। গত অর্থবছরের একই সময়ে আয় হয়েছিল ১ হাজার ৯৩০ কোটি ২১ লাখ ডলার।

সর্বশেষ ডিসেম্বর মাসে পণ্য রপ্তানি থেকে ৩৩১ কোটি ডলার আয় হয়েছে; লক্ষ্য ছিল ৩৫২ কোটি ৬০ লাখ ডলার। ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে আয় হয়েছিল ৩৫২ কোটি ৯১ লাখ ডলার।

ইপিবির তথ্যে দেখা যায়, জুলাই-ডিসেম্বর সময়ে তৈরি পোশাক রপ্তানি থেকে আয় হয়েছে ১ হাজার ৫৫৪ কোটি ৫৫ লাখ ডলার। এই অঙ্ক গত অর্থবছরের একই সময়ের চেয়ে ৩ শতাংশ কম। আর লক্ষ্যের চেয়ে কম ৪ দশমিক ১২ শতাংশ। তবে এই ছয় মাসে নিট পোশাক রপ্তানি থেকে আয় বেড়েছে। মোট আয় এসেছে ৮৫২ কোটি ৬১ লাখ ডলার, প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৩ দশমিক ৯০ শতাংশ। লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে আয় বেড়েছে ৬ দশমিক ৩৯ শতাংশ।

সবচেয়ে বড় ধাক্কা লেগেছে উভেন পোশাক রপ্তানিতে। জুলাই-ডিসেম্বর সময়ে এই খাত থেকে আয় হয়েছে ৭০১ কোটি ৯৩ লাখ ডলার, যা গত অর্থবছরের একই সময়ের চেয়ে ১০ দশমিক ২২ শতাংশ কম। আর লক্ষ্যের চেয়ে ১৪ দশমিক ৩৯ শতাংশ কম।

দেশের রপ্তানির আয়ের প্রায় ৮৫ শতাংশ আসে তৈরি পোশাক খাত থেকে। ইপিবির তথ্য বিশ্লেষণে দেখা যায়, জুলাই-ডিসেম্বরে তৈরি পোশাক থেকে মোট রপ্তানি আয়ের ৮০ দশমিক ৮২ শতাংশ এসেছে।

এফএ

RTV Drama
RTVPLUS