Mir cement
logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ২৫ জুন ২০২১, ১১ আষাঢ় ১৪২৮

‘ঈদে সাধ থাকলেও তা পূরণে সাধ্য নেই’

‘ঈদে সাধ থাকলেও তা পূরণে সাধ্য নেই’

আজ পবিত্র ঈদুল ফিতর। করোনা মহামারি সময়ে দিনটি কার কাছে আনন্দের আবার কারও কারও বেদনার। মৌলভীবাজারের কুলাউড়ার হাওরপাড়ে কাদিপুর ইউনিয়নের বর্গাচাষি ফারুক মিয়ার জীবনে ঈদ বলতে কিছু নেই। অন্য সব দিনগুলোর মতো ঈদের দিন কাটছে। ঈদ উপলক্ষে ফারুক মিয়া সন্তানদের নতুন কাপড় কিংবা ভালো খাবার জোটেনি।

ফারুক মিয়ার সাত বছরের কন্যা সন্তান নিপা ও জুয়েল আহমেদ নামে বিশ বছর বয়সি একটি ছেলে রয়েছেন। অভাবের তাড়নায় মেয়েকে ঈদের পোশাক কিনে দিতে পারেননি।

নিপা জানায়, আজ সকালে শুধু সেমাই খেয়েছে। বাবা তাকে নতুন কাপড় কিনে দেয়নি। নিপার বড় ভাই জুয়েল আহমেদ বলেন, সকালে ঈদের নামাজে যাওয়ার আগে একটু সেমাই খেয়েছিলাম। বৃষ্টির কারণে ঈদ মনে হচ্ছে না।

ঈদ কেমন কাটছে জানতে চাইলে নিপা ও জুয়েলের বাবা ফারুক মিয়া বলেন, গরীব মানুষের কপালে আবার ঈদ। গরীবের আবার ঈদ কিসের। ধান পেয়েছি, কিন্তু দাম কম হওয়ায় বিক্রি করিনি। এক মন ধান বিক্রি করলে পাব ৮০০ টাকা। এই টাকা দিয়ে জীবিকার চাকা ঘোরে না।

অশ্রুসিক্ত নয়নে বর্গাচাষি ফারুক মিয়া বলেন, ‘আমাদের মতো মানুষের কপালে ভালো খাবার বলতে কিছু নেই, প্রতিদিন যা খাই আজও তাই। সাধ থাকলেও তা পূরণ করার সাধ্য নেই।

এফএ

RTV Drama
RTVPLUS