Mir cement
logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ১৮ মে ২০২১, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

  ১৪ এপ্রিল ২০২১, ২১:০৬
আপডেট : ১৪ এপ্রিল ২০২১, ২১:১৫

ইভটিজিংয়ের শাস্তির জের ধরে ভয়াবহ হামলা

ইভটিজিংয়ের শাস্তির জের ধরে ভয়াবহ হামলা
ইভটিজিংয়ের শাস্তির জের ধরে ভয়াবহ হামলা

ইভটিজিংয়ের সামাজিক শাস্তির জের ধরে সুনামগঞ্জের তাহিরপুরের টাকাটুকিয়া গ্রামে এক বাড়িতে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালিয়েছে একদল বখাটে। হামলায় বৃদ্ধ ও নারীসহ ৮ জন আহত হয়েছে। বুধবার (১৪ এপ্রিল) দুপুর দেড়টায় দক্ষিণ বড়দল ইউনিয়নের টাকাটুকিয়া গ্রামের দেবেন্দ্র বর্মণের বাড়িতে এই ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে তাহিরপুর থানা পুলিশ।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, টাকাটুকিয়া গ্রামের বর্মণ পাড়ার স্কুল পড়ুয়া ছাত্রীদের দীর্ঘদিন ধরে উত্যক্ত করছিলো পার্শ্ববর্তী টুকেরগাঁও গ্রামের কাশেম মিয়া, লাইট মিয়া, মুসা মিয়া, পাবেল মিয়া। চার মাস পূর্বে টাকাটুকিয়া গ্রামে জামালগড়, রসুলপুর ও টুকেরগাঁও গ্রামের গণ্যমান্যদের উপস্থিতিতে শালিস হয়। ভবিষ্যতে এমন কাজ করবে না বলে শালিসে অঙ্গিকার করে ও কান ধরে উঠ-বস করে অভিযুক্তরা।

সামাজিক বিচারে অপমানের জের ধরে বুধবার দুপুরে দেবেন্দ্র বর্মণের ছেলে সঞ্চিত বর্মণকে রাস্তায় একা পেয়ে মারধর করে টুকেরগাঁও গ্রামের অভিযুক্তরা। এসময় পরিবারের লোকজন ছুটে আসলে তাদেরকেও মারধর করা হয়। এরপর টুকেরগাঁও গ্রামের ২০-২৫ জন টাকাটুকিয়া গ্রামের দেবেন্দ্র বর্মণের বাড়িতে হামলা চালায়। হামলাকারীরা বাড়ির পুরুষ-মহিলাদের মারধর করে। এতে দেবেন্দ্র বর্মণ (৭০), তার ছেলে বাছিন্দ্র বর্মণ (৫০), সত্যেন্দ্র বর্মণ (৪৫), সঞ্চিত বর্মণ (৩০) বাছিন্দ্র বর্মণের স্ত্রী বিউটি বর্মণ (৪৫), ছেলে বাবলু বর্মণ (১৭), শিপলু বর্মণ (১৫) ও তাদের আত্মীয় দেবল বর্মণ (২২) আহত হয়েছেন। এছাড়া গুরুত্বরভাবে জখম হয়েছেন দেবেন্দ্র বর্মণ, বাছিন্দ্র বর্মণ, বাবলু বর্মণ। তাদের তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলেও পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মেডিকেল অফিসার মির্জা রিয়াদ হাসান জানান, টাকাটুকিয়া গ্রামের তিনজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। তাদের শরীরে ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে। উন্নত চিকিৎসার জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে তাদের।

তাহিরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুল লতিফ তরফদার জানান, বর্মণ পাড়ার মেয়েদের পার্শ্ববর্তী গ্রামের কিছু বখাটে উত্যক্ত করতো। এর জের ধরে আজ বর্মণ পাড়ার এক ছেলেকে রাস্তায় পেয়ে মারধর করেছে টুকেরগাঁও গ্রামের ছেলেরা। এসময় পরিবারের লোকজন এগিয়ে আসলে তাদেরকেও নাকি মারধর করেছে। তিন জন হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন বলে জেনেছি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

তাহিরপুর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার বাবুল আকতার বলেছেন, এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। এছাড়াও মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

এসআর/

RTV Drama
RTVPLUS