Mir cement
logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১, ১২ শ্রাবণ ১৪২৮

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

  ১৪ জুলাই ২০২১, ১৯:০১
আপডেট : ১৪ জুলাই ২০২১, ১৯:২৫

কোলাহলে ঘুম ভাঙায় ইউপি সদস্যের ছেলেকে হ’ত্যা করলো প্রতিবেশী

গ্রেপ্তার অভিযুক্ত ব্যক্তি

কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার ভোগডাঙ্গা ইউপির সংরক্ষিত সদস্যের প্রতিবন্ধী সন্তান জাহিদ হাসানকে (১৮) পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। মা ছলিমা বেগমকে বাঁচাতে গিয়ে মৃত্যু হয় ছেলে জাহিদের। বুধবার (১৪ জুলাই) সকালে কাচির চর এলাকায় এ হত্যাকাণ্ড ঘটে। ঘটনার পরপরই পুলিশ অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত কাজল খানকে (কাশেম) আটক করে।

জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. পুলক সরকার আরটিভিকে জানান, মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে গুরুতর জখম পেয়েছি। এছাড়া তার মাথায় থাকা টিউমারে আঘাত লাগায় অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে মৃত্যু হয়েছে তার।

ভোগডাঙ্গা ইউপির সংরক্ষিত মহিলা সদস্য ছলিমা বেগম জানান, সকালে বাড়িতে ভিজিএফ’র চাল পেতে বিভিন্ন এলাকার নারীরা আসে। অভিযুক্ত কাজল খান কাশেমের বাড়ি আমার বাড়ির সামনেই। ভিজিএফ’র চাল দেয়ার সময় লোকজনের কোলাহলে কাশেমের ঘুম ভেঙে গেলে সে রেগে গিয়ে বাড়ি থেকে কাঠ এনে আমাকে রাস্তায় বেধড়ক পেটাতে থাকে। আমি মাটিতে লুটিয়ে পড়লে আমার প্রতিবন্ধী ছেলে জাহিদ হাসান আমাকে জড়িয়ে ধরে বাঁচানোর চেষ্টা করে। এসময় কাশেম জাহিদকেও এলোপাথাড়ি পেটাতে থাকেন। এতে ঘটনাস্থলেই জাহিদ লুটিয়ে পড়ে এবং তার কান দিয়ে রক্ত বের হয়ে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। পরে প্রতিবেশীরা আমাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় প্রতিবন্ধী ছেলের মৃত্যু হয়।

ভোগডাঙ্গা ইউপির সংরক্ষিত সদস্য আরও বলেন, কাশেমের সঙ্গে তার বাড়ির রাস্তা নিয়ে আগে থেকেই বিরোধ চলছিল। এই বিরোধকে কেন্দ্র করেই আমার প্রতিবন্ধী ছেলেকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। আমি এর বিচার চাই।

কুড়িগ্রাম সদর থানার অফিসার ইনচার্জ খান মোহাম্মদ শাহরীয়ার আরটিভি নিউজকে জানান, ঘটনাস্থলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। লাশের ময়না তদন্ত করে স্বজনদের হাতে হস্তান্তর করা হবে।

এসআই/এসআর

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS