Mir cement
logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

নদীর ঘাটে গৃহবধূর লাশ রেখে পালালো শ্বশুর বাড়ির লোকজন

নদীর ঘাটে গৃহবধূর লাশ রেখে পালালো শ্বশুর বাড়ির লোকজন
নদীর ঘাটে গৃহবধূর লাশ রেখে পালালো শ্বশুর বাড়ির লোকজন

নাগেশ্বরীতে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে দুধকুমর নদীর ঘাটে অ্যাম্বুলেন্সে ২ সন্তানের জননীর মরদেহ রেখে পালিয়েছে শ্বশুর বাড়ির লোকজন। পরে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্যে মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ। বুধবার (২১ এপ্রিল) ঘটেছে ঘটনাটি।

নিহতের বাবা উপজেলার রামখানা ইউনিয়নের দক্ষিণ রামখানা কলোনিটারী গ্রামের বেলাল হোসেন জানান, ৬ বছর আগে কচাকাটা ইউনিয়নের কামারের চর গ্রামের মন্তাজ হোসেনের ছেলে আলী হোসেনের (৩০) সঙ্গে বিয়ে হয় তার মেয়ে রহিমা খাতুনের (২২)। গত ৩ দিন আগে পারিবারিক বিষয়ে তার মেয়ে রহিমার সঙ্গে জামাতা আলী হোসেন ও তার পরিবারের অন্যান্যদের ঝগড়া হয়। এরপর রহস্যজনকভাবে তার অসুস্থতার কথা বলে আমাদেরকে না জানিয়ে মঙ্গলবার গভীর রাতে নাগেশ্বরী হাসপাতালে নেয়া হয় মেয়েকে। হাসপাতালে ভর্তি করার আগেই মারা গেছে রহিমা খাতুন। বুধবার আলী হোসেনের পরিবার মেয়ের মরদেহ নদীর ঘাটে অ্যাম্বুলেন্সে রেখে পালিয়ে গেছে।

নাগেশ্বরী থানার এস.আই সাইফুল জানান, আমরা বুধবার সকালে সংবাদ পেয়ে কালীগঞ্জ ওয়াবদা ঘাটে গিয়ে অ্যাম্বুলেন্সসহ লাশ থানায় নিয়ে যাই। পরে মৃতের বাবা বেলাল হোসেনের অভিযোগের প্রেক্ষিতে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত নিশ্চিত করে নিহতের বিষয়ে কিছু বলা যাচ্ছে না।

এসআর/

RTV Drama
RTVPLUS