logo
  • ঢাকা রোববার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ২৮ চৈত্র ১৪২৭

প্রতিবেদন প্রত্যাখ্যান করলেন বেরোবি’র উপাচার্য

রংপুর বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (বেরোবি) উপাচার্য নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ‘বিশেষ উন্নয়ন প্রকল্পে’ রংপুর বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (বেরোবি) উপাচার্য নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহসহ সংশ্লিষ্ট কয়েকজন কর্মকর্তা অনিয়ম ও দুর্নীতি করেছেন। এর প্রমাণ পেয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন। এজন্য তাদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সুপারিশ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন। তবে এ বিষয়ে উপাচার্য নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ মঙ্গলবার (০২ মার্চ) রাতে একটি বেসরকারি টেলিভিশনে সাক্ষাৎকারে বলেছেন, তদন্ত কমিটির সদস্যরা তার কাছে এসেছিলেন কিন্তু এই অনিয়ম কিংবা দুর্নীতির বিষয়ে কোন ধরনের আলোচনা করেনি। এই প্রতিবেদন প্রত্যাখ্যান করছি।

তিনি আরও বলেন, রংপুর বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (বেরোবি) সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ কে এম নূর উন নবী থাকা অবস্থায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়ন প্রকল্প নিয়ে কিছু সমস্যা সৃষ্টি করে ছিলেন। আমি ২০১৭ সালের ১৪ জুন বিশ্ববিদ্যালয়ে নতুন উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ পেয়ে তার (ড. এ কে এম নূর উন নবী) সময়ে থাকা সমস্যাগুলো যথাযথ সমাধানের চেষ্টা করেছি।

তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়ন প্রকল্পের সমস্যাগুলো সমাধানের চেষ্টা করেছি। আইন অনুযায়ী ঠিকাদারদের সঙ্গে নিয়ে কাজ এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছি। ইতোমধ্যে ১০ তলা ভবনের মধ্যে ৫ তলার নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হয়েছে।

উপাচার্য নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ আরও বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন প্রকল্পের উন্নয়ন কাজ তদন্ত করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে জমা দিয়েছে। এটি পত্রপত্রিকার মাধ্যমে জেনেছি। যথাযথ প্রক্রিয়া আমার কাছে এলে বিষয়টি দেখবো। এই মুহূর্তে উদোর পিন্ডি বুধোর ঘাড়ে চাপানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। এজন্য প্রতিবেদনটি প্রত্যাখ্যান করছি।

এর আগে মঙ্গলবার (০২ মার্চ) তদন্ত কমিটি বেরোবি’র উন্নয়ন প্রকল্পে অনিয়মের প্রমাণ পেয়েছে। সরকারি ক্রয় প্রক্রিয়া লঙ্ঘনসহ অনৈতিক কর্মকাণ্ডের জন্য সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন।

এফএ

RTV Drama
RTVPLUS