Mir cement
logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৩ মে ২০২১, ৩০ বৈশাখ ১৪২৮

রাজশাহী প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

  ১৭ এপ্রিল ২০২১, ১৯:০৯
আপডেট : ১৭ এপ্রিল ২০২১, ১৯:২৫

প্রত্যয়নপত্র নিয়ে ধান কাটতে যাচ্ছেন ২০ হাজার শ্রমিক

প্রত্যয়নপত্র নিয়ে ধান কাটতে যাচ্ছেন ২০ হাজার শ্রমিক

করোনাভাইরাস সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় সারাদেশে লকডাউন ঘোষণা করে সরকার। এতে যাত্রীবাহী যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। তবে এর মধ্যে দেশের বিভিন্ন এলাকায় বোর ধান পাকায় তা কাটার উপযোগী হয়েছে। ধান কাটতে শ্রমিক সংকট যেন না হয় সেজন্য রাজশাহীর বাঘা উপজেলা কৃষি অফিসারের কাছ থেকে প্রত্যয়নপত্র নিয়ে ধান কাটতে এলাকা ছাড়ছেন প্রায় ২০ হাজার শ্রমিক। চলতি সপ্তাহ থেকে গ্রুপ ধরে শ্রমিকরা এলাকার বাইরে ধান কাটতে যাওয়া শুরু করেছেন।

সংশ্লিষ্টরা জানায়, গত মৌসুমেও ১৫-২০ জনের সমন্বয়ে এক একটি গ্রুপ গঠিত হয়। এভাবে গেল বছর প্রায় ২২ হাজার শ্রমিক ধান কাটতে বাইরে গিয়েছিলেন। চলতি মৌসুমেও ২০ হাজার শ্রমিক পর্যায়ক্রমে ধান কাটতে যাওয়ার জন্য এলাকা ছাড়তে শুরু করেছেন।

উপজেলা কৃষি অফিসের তথ্যমতে, ৬ হাজার শ্রমিক এরইমধ্যে আবেদন করে প্রত্যয়নপত্র নিয়েছেন। এসব শ্রমিকরা ধান কাটতে নাটোর, নওগাঁ, জয়পুরহাট, পাবনা, সিরাজগঞ্জ, বগুড়া জেলার বিভিন্ন উপজেলায় যাচ্ছেন। শ্রমিকরা ভটভটিসহ বিভিন্ন যানবাহনে চড়ে যাচ্ছেন নিজ নিজ কর্মস্থলে।

উপজেলা কৃষি অফিসার শফিউল্লাহ সুলতান বলেন, ধান উৎপাদিত এলাকায় প্রতিবছর এ সময় শ্রমিক সঙ্কট দেখা দেয়। এর সমাধানকল্পে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা করোনাভাইরাসের মধ্যে প্রত্যয়নপত্র দিয়ে শ্রমিক পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন। সেই ক্ষেত্রে উপজেলার নির্বাহী অফিসার ও আমার যৌথ স্বাক্ষরে প্রত্যয়নপত্র (অনুমতি) দেয়া হচ্ছে। তবে এর মধ্যে কেউ যদি করোনা আক্রান্ত এলাকা থেকে নিজ এলাকায় ফিরে আসে, তাদের নমুনা পরীক্ষা করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার পাপিয়া সুলতানা বলেন, সরকার নির্দেশিত ১৩ বিধিমালার মধ্যে একটি বিধি রয়েছে বাইরে শ্রমিকদের কর্মে যাওয়ার বিষয়ে। বর্তমানে মন্ত্রণালয় থেকে নতুন কোনো নির্দেশনা আসেনি। তাই পূর্বের নির্দেশনা অনুযায়ী শ্রমিকদের কাজে যাওয়ার প্রত্যয়ন ও নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। এমনকি শ্রমিকবাহী গাড়ির চালকদেরও এ প্রত্যয়ন দেয়া হয়েছে।

এফএ/পি

RTV Drama
RTVPLUS