Mir cement
logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ৪ আষাঢ় ১৪২৮

নেত্রেকোনা প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

  ০৬ মে ২০২১, ২০:৩০
আপডেট : ০৬ মে ২০২১, ২০:৩৪

কেন্দুয়ায় হাসেমের বিরুদ্ধে নারী নির্যাতন মামলা, প্রতিবেদন ঠেকাতে সাংবাদিককে হুমকি

কেন্দুয়ায় হাসেমের বিরুদ্ধে নারী নির্যাতন মামলা, প্রতিবেদন ঠেকাতে সাংবাদিককে হুঁমকি

নেত্রকোনার কেন্দুয়ায় মোজাফর পুর ইউনিয়নের গগডা ভুইয়া পাড়া বাসিন্দা ফজলুর রহমানের ছেলে হামিদুর রহমান হাসেম (২৮) এ সাথে ৩ বছর আগে কেন্দুয়া পৌর এলাকার মহিউদ্দিনের বড় মেয়ে নেত্রকোনা সরকারি কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের শেষ বর্ষের ছাত্রী মাকসুদার সাথে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়।

মাকসুদার বাবা মহিউদ্দিন জানান, বিয়ের কিছু দিন পর থেকেই আমার মেয়েকে নানা অজুহাতে যৌতুকের জন্য চাপ দিতে থাকে। ফিসারিস ব্যবসার নামে মেয়ের মাধ্যমে আমার কাছ থেকে ৭ লাখ টাকা ধার নেয়। প্রায় ৬ মাস পর বিশেষ প্রযোজন থাকায় এই টাকা ফেরত চাইলে আরো টাকা নেওয়ার জন্য চাপ দিতে থাকে আমার মেয়েকে। টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে আমার মেয়েকে শেষ পর্যন্ত তার শাশুড়ি জামাই মিলে নির্যাতন করে।

তিনি আরও বলেন, মেয়ে আমার বাড়িতে আছে। কিন্তু মেয়ের স্বামী হামিদুর রহমান হাসেম আমার বাড়িতে এসে মেয়েকে নিয়ে যাওয়ার জন্য তাণ্ডব চলায়। এসময় ১ লাখ টাকা, আমার মেয়ের ৭ ভরি স্বর্ণ ও একটি মোবাইল নিয়ে পালিয়ে যায়। এসময় আমি বাসায় ছিলাম না। এসে ঘটনাটি শুনেছি। পরে আমার স্ত্রী বাদী হয়ে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করে।

এ ঘটনায় হামিদুর রহমান হাসেম তার স্ত্রীকে বাবার বাসা থেকে আনতে গেলে তাকে তার শ্বশুর বাড়ির লোকজন তাকে মারপিট করে বলে কেন্দুয়া থানায় পাল্টাপাল্টি অভিযোগ দায়ের করেন।

এই সমস্যার বিষয়ে হামিদুর বলেন, আমি ছুটিতে এসে আমার স্ত্রীকে আনতে গেলে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকে মারপিট করেছে, আমি এখন ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছি। তার কিছুক্ষ পর বেলা ১২টা ৪৪ মিনিটে ০১৭৩৭ ৩৮১৭৩২ নম্বর থেকে প্রতিবেদককে হুমকি দেওয়া হয় যে এই ঘটনায় কোন প্রতিবেদন না করার জন্য। প্রতিবেদকের ওপর যেকোনো ধরনের হামলা হতে পারে সেই আশঙ্কা থেকে প্রতিবেদক থানায় সাধারণ ডায়রি করেছেন।

এ ব্যাপারে কেন্দুয়া থানা অফিসার ইনচার্জ কাজী শাহনেওয়াজ জানান, আমরা উভয় পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেব।

এফএ

RTV Drama
RTVPLUS