Mir cement
logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন ২০২১, ৩ আষাঢ় ১৪২৮

৯ মাসের অন্তঃসত্ত্বার পেটে লাথি, মৃত সন্তান প্রসব!

৯ মাসের অন্তঃসত্ত্বার পেটে লাথি, মৃত সন্তান প্রসব!
৯ মাসের অন্তঃসত্ত্বার পেটে লাথি, মৃত সন্তান প্রসব!

পূর্বশত্রুতার জেরে প্রতিপক্ষের লাথিতে ৯ মাসের অন্তঃসত্ত্বা এক নারীর গর্ভের সন্তানের মৃত্যু হয়েছে বলে নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলার সান্দিকোনা ইউনিয়নের সান্দিকোনা গ্রামে অভিযোগ উঠেছে। ভুক্তভোগী ওই নারী হাসপাতালে মৃত ছেলে সন্তান প্রসব করেছেন। পরে ওই নবজাতকের ময়নাতদন্ত হয়েছে।

বুধবার (৫ মে) রাতে বিষয়টি সমাধানে গ্রামে একটি সালিস বৈঠক হয়। বৈঠকে ভুক্তভোগী পরিবারটির পাশে দাঁড়ানোসহ অভিযুক্তদের কঠোর শাস্তি নিশ্চিতে সহযোগিতার আশ্বাস দেয়া হয়।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ওই গ্রামের আবদুস সাত্তারের সঙ্গে প্রতিবেশী আবুল কালামের দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছে। যার জেরে সাত্তার ও তার ছেলে বাবু মিয়াসহ পাশের গ্রামের রফিকুল ইসলাম, হলুদ মিয়া ও লিটন মিয়াসহ কয়েকজন অনুসারীরা গত ৩০ এপ্রিল সন্ধ্যায় দেশীয় অস্ত্র নিয়ে আবুল কালামের ছেলে মাইনুলদের বাড়ি হঠাৎ করেই হামলা করে। এসময় মাইনুলের বাবা-মা ও স্ত্রী আহত হয় এবং মাইনুলের ভাই খায়রুলের ৯ মাসের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীর পেটেও লাথি মারে অভিযুক্তরা। পরে এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা দায়ের করেন মাইনুলের পরিবার। তবে ৩ মে মামলা হলেও এখনো কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

খায়রুলের স্ত্রী গুরুতর অসুস্থ হলে তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। মঙ্গলবার (৪ মে) সে একটি মৃত সন্তান জন্ম দেন। পরে বিষয়টি সমাধানে বুধবার গ্রামে একটি সালিস হয়। সেখানে গ্রামের বাসিন্দারা গৃহবধূর পরিবারটির পাশে থেকে ন্যায় বিচারে সহায়তার আশ্বাস দেন।

কেন্দুয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) নোমান সাদেকীন জানিয়েছেন, গৃহবধূর গর্ভের সন্তান নষ্ট হওয়ার অভিযোগটি আগের মামলায় যুক্ত হবে। তদন্ত সাপেক্ষে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এসআর/

RTV Drama
RTVPLUS