logo
  • ঢাকা বুধবার, ০৩ মার্চ ২০২১, ১৮ ফাল্গুন ১৪২৭

প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ঘর: সাবেক এমপির চোখে এখন আনন্দ অশ্রু

Tears, eyes, former, MP, getting,house, Prime Minister
প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ঘর: সাবেক এমপির চোখে এখন আনন্দ অশ্রু

বাংলাদেশে রাজনীতি থেকে শুরু করে প্রশাসনিক পর্যায়ে দুর্নীতি, অনিয়ম ও স্বেচ্ছাচারিতা করে শতশত মানুষ সম্পদের পাহাড় গড়িয়েছেন। আর রাজনীতিতে ইউনিয়ন পরিষদের সাধারণ সদস্য হিসেবে কেউ নির্বাচিত হলেও পেছনের দিকে থাকাতে হয় না। আর সেখানে একজন ব্যক্তি দুই দুইবারের জাতীয় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পরেও ভাড়া বাড়ি থাকতেন। এখন অবশ্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর পেয়েছেন। অনেকে ঘটনাটি গল্প ভাবলে ভুল করবেন। ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার দু’বারের সাবেক সাংসদ এনামুল হক জজ মিয়ার আশ্রয় মিলেছে সরকারের আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘরে। মুজিব বর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ উদ্যোগে নির্মিত আশ্রয়ণ প্রকল্পের একটি ঘর তিনি বরাদ্দ পেয়েছেন।

গতকাল শনিবার গফরগাঁওয়ের সাংসদ ফাহমি গোলন্দাজ বাবেল ঘরের কাগজপত্র সাবেক সাংসদের হাতে তুলে দেন। ইতোমধ্যে ঘরটি সাজানোর কাজে ব্যস্ত রয়েছেন সাবেক এই সাংসদ সদস্য। ভাড়া বাড়ির পুরনো আসবাবপত্র নতুন ঘরে নিয়ে আসা শুরু করেছেন। তবে আগামী ফেব্রুয়ারি মাসের শুরু থেকেই তিনি ওই ঘরে বসবাস করবেন।

মুজিববর্ষ উপলক্ষে দেশে ৬৬ হাজার ১৮৯ ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমি ও ঘর উপহার দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শনিবার (২৩ জানুয়ারি) ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর ঘর বিতরণের উদ্বোধনের পর স্থানীয় জনপ্রতিনিধি এবং জেলা প্রশাসকদের পক্ষ থেকে প্রথম ধাপে ভূমিহীন পরিবারের সদস্যদের জমির দলিল ও ঘর বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সহায় সম্বলহীন দু’বারের নির্বাচিত সাবেক এমপি এনামুল হক জজ মিয়া গফরগাঁও পৌর শহরের সালটিয়া গ্রামে একটি ভাড়া বাসায় বসবাস করতেন। নিয়তির নির্মম পরিহাস সব কিছু হারিয়ে তিনি গৃহহীন হয়ে পড়েন। ঘরের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে দাবি করলে প্রধানমন্ত্রী তাকে ঘর দেন। ঘর পেয়ে তিনি আনন্দে কাঁদেন। আর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জ্যেষ্ঠ কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে কৃতজ্ঞ জানান।

স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, এনামুল হকের বাড়ি ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলায়। তিনি ১৯৮৬ ও ১৯৮৮ সালে জাতীয় পার্টির হয়ে ময়মনসিংহ-১০ (গফরগাঁও) আসন থেকে সাংসদ নির্বাচিত হয়েছিলেন। সাংসদ থাকার সময় তিনি রাজধানী ঢাকায় থাকতেন। পরবর্তী সময়ে তার স্ত্রী ও সন্তানেরা দেশের বাইরে চলে যান। জাতীয় পার্টি রাষ্ট্রক্ষমতা ছাড়লে তিনি গফরগাঁওয়ে গিয়ে বসবাস শুরু করেন। দিনে দিনে তার আর্থিক অবস্থা খারাপ হয়ে যায়। বর্তমানে তার স্ত্রী ও সন্তানেরা ঢাকায় ও দেশের বাইরে বসবাস করছেন। আর তিনি গফরগাঁও পৌর শহরে একটি ভাড়া বাড়িতে বসবাস করেন। সরকারি ঘর পাওয়ার পর তিনি ওই বাড়িতে বসবাস করবেন।

গফরগাঁও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আশরাফ উদ্দিন বাদল বলেন, এনামুল হক জজ মিয়া সাবেক সাংসদ। বর্তমানে তার নিজের বাড়ি না থাকায় তিনি সরকারে আশ্রয়ণ প্রকল্পের আওতায় একটি ঘর পেয়েছেন।

গফরগাঁওয়ের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. তাজুল ইসলাম বলেন, ব্যক্তিগত নানা কারণে সাবেক সাংসদ এনামুল হকের আর্থিক অবস্থা খারাপ। গফরগাঁও পৌর শহরের শিলাশী এলাকায় একটি বাড়িতে তিনি ভাড়া থাকেন। বিষয়টি জানার পর গফরগাঁওয়ের বর্তমান সাংসদ ফাহমি গোলন্দাজ নির্দেশ দিয়েছিলেন তার জন্য একটি ঘর বরাদ্দ করতে। গতকাল ঘরটি তাকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে।

গতকাল শনিবার উপজেলা সম্মেলন কক্ষে সাংসদ ফাহমি গোলন্দাজ ঘরের চাবি তুলে দেন এনামুল হকের হাতে। ঘরের চাবি পেয়ে তিনি প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

এফএ

RTV Drama
RTVPLUS