Mir cement
logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৯ আশ্বিন ১৪২৮

স্বামীর নির্যাতন সইতে না পেরে গৃহবধূর আত্মহত্যা

স্বামীর নির্যাতন সইতে না পেরে গৃহবধূর আত্মহত্যা

কেরানীগঞ্জের কদমতলী এলাকায় পারিবারিক কলহের জেরে আনিকা আক্তার জান্নাত নামে (২৪)এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন। বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) ঝুলন্ত ফ্যানের সাথে রশি বেঁধে তিনি আত্মহত্যা করেন। বেলা ১২ ‍টার দিকে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে।

নিহত আনিকা স্বামী-সন্তান নিয়ে কদমতলী এলাকার সোহেল মিয়ার বাড়ির নিচতলায় ভাড়া থাকতেন। স্বামি আনিস কদমতলী এলাকায় টাইলস্ এর দোকানের কাজ করেন।

নিহতের মা জানান, আমার মেয়েকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে পরিবারের অমতে বিয়ে করে আনিস। এরপর থেকেই স্বামী আনিসের নির্যাতনের শিকার হতে থাকে আমার মেয়ে। সে প্রায়ই মাদক সেবন করে ওর উপর শারীরিক নির্যাতন করতো। আমি আমার মেয়ের হত্যার বিচারের দাবি জানাই।

বাড়ি মালিক- মোঃ সোহেল জানান, তিন মাস হয়েছে নিচতলার একটি রুমে তারা ভাড়া এসেছে। আমি দোকান থেকে লোকমুখে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে দেখি ফ্যানের সাথে ঝুলন্ত মরদেহ। ঘরের ভিতরে নিহতের তিন বছরের ছেলে আনাস আটকা পড়ে ছিল। আশপাশের সবার সাথে পরামর্শ করে ঘরের ছিটকিনি ভেঙ্গে শিশুটিকে আমরা উদ্ধার করি। পরে ৯৯৯ লাইনে কল দিয়ে পুলিশকে বিষয়টি অবগত করলে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে।

নিহতের স্বামী আনিস আরটিভি নিউজকে বলেন, সে ছিলো মানসিক ভারসাম্যহীন। কেন আত্মহত্যা করেছে তা আমি জানিনা।

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার উপ-পরিচালক এস আই শরিফুল জানান, ৯৯৯এ ফোন পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে সিলিং ফ্যানের সাথে রশি দিয়ে বাঁধা ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়।পরে ময়নাতদন্তের জন্য স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে তার মরদেহ। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের স্বামী এবং মাকে থানায় নেওয়া হয়েছে।

এমএন

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS