Mir cement
logo
  • ঢাকা সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২ আশ্বিন ১৪২৮

বৈরী আবহাওয়াতেও দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে ঢাকাগামী মানুষের ভিড়

ঘাটে আসা যাত্রীদের ভিড়

দেশের মানুষের কর্মক্ষেত্রের এক বড় নগরী রাজধানী ঢাকা। কাজে যোগ দিতে হবে, তাই ঢাকা যেতে হবে। জীবীকার তাড়না লকডাউনকে হার মানায়, হার মানায় বৈরী আবহাওয়াকেও। দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের শত শত মানুষ তাই বৃষ্টি মাথায় নিয়েও পার হচ্ছেন পদ্মা নদী। মহামারি করোনার কঠোর বিধিনিষেধ আর বৈরী আবহাওয়া যেন উবে গেছে তাদের কাছে।

বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) সকাল থেকেই ঢাকাগামী যাত্রীদের ভিড় রয়েছে রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ঘাটে। ফেরিতে পার হওয়া যানবাহনের সংখ্যা কম, তবে সেই জায়গা দখল করেছে সাধারণ যাত্রীরা। লঞ্চ, স্পিডবোট বন্ধ। ফলে পদ্মা পার হবার একমাত্র উপায় এখন ফেরি। সে কারণে ফেরিতেই যাত্রীদের ঢল নেমেছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, করোনাভাইরাসের কারণে কার্যত দেশের বিভিন্ন এলাকা এখন লকডাউন। স্বাভাবিক জীবনযাত্রা ফেরার আগেই ঢাকাগামী যাত্রীদের ভিড়। চলছে না দূরপাল্লার কোনো পরিবহন। তবে এরই মধ্যে পোশাক কারখানাসহ বিভিন্ন শিল্প-কারখানা খুলে দেয়ার খবরে চাকরি বাঁচাতে ছুটতে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে।

দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলসহ বিভিন্ন এলাকার নিম্ন আয়ের মানুষ, যারা পোশাক কারখানাসহ বিভিন্ন কারখানায় কাজ করে তাদের বড় একটা অংশই ঢাকায় গত কয়েকদিন ধরেই যাচ্ছে।

বৃহস্পতিবার বৈরী আবহাওয়ার মধ্যেও তাদের যাত্রা থেমে নেই। পথে পথে অতিরিক্ত ভাড়ায় ছোট যানবাহনে করে ভেঙে ভেঙে দৌলতদিয়া ঘাটে এসে পৌঁছান তারা। এখানে ফেরিতে করে পদ্মা পার হতে হচ্ছে যাত্রীদের।

এদিকে বৃহস্পতিবার ভোর থেকেই বৈরী আবহাওয়া শুরু হয়। আকাশ মেঘাচ্ছন্ন। বৃষ্টি আর বাতাস বইতে থাকে। এই আবহাওয়ার মধ্যেই দুর্ভোগ মাথায় নিয়েই পদ্মা পার হচ্ছে শত শত যাত্রী।

কুষ্টিয়া থেকে আসা পরিবারসহ এক যাত্রী করোনা ভাইরাসের ঝুঁকি ও ঝড়বৃষ্টি মাথায় নিয়ে ঢাকা যাওয়ার বিষয়ে বলেন, পেটের ক্ষুধার জন্য যাচ্ছি। বাড়িতে এই ক’দিন তো ছিলাম। কাজ না করলে খাবার আসবে কোথা থেকে? করোনার চেয়েও পেটের ক্ষুধা বড়। কাজে যেতে না পারলে হয়তো চাকরিও থাকবে না।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন করপোরেশনের (বিআইডাব্লিউটিসি) দৌলতদিয়া ঘাট ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) মো. জামাল হোসেন আরটিভি নিউজকে বলেন, বৈরী আবহাওয়ার সঙ্গে ঝড়-বৃষ্টি হওয়ায় ফেরিতে যানবাহন কম। তাই সকাল থেকে সাধারণ যাত্রীরাই পার হচ্ছে। তবে ২/৩টি জরুরি যানবাহন না হলে ফেরি ছাড়া হচ্ছ না।

এসআর/

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS