Mir cement
logo
  • ঢাকা রোববার, ২০ জুন ২০২১, ৬ আষাঢ় ১৪২৮

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ :

  ০৯ জুন ২০২১, ২৩:০৭
আপডেট : ০৯ জুন ২০২১, ২৩:১৯

দুই বান্ধবীর সঙ্গে মোবাইলে পরিচয়, মাজার দেখানোর কথা বলে ধ'র্ষণ করলো ২ বন্ধু!

প্রতীকী ছবি

দুই বন্ধুর সঙ্গে দুই বান্ধবীর মোবাইলে পরিচয় হয়। মঙ্গলবার (৮ জুন) নারায়ণগঞ্জের বন্দর এলাকায় মাজার দেখার কথা বলে বান্ধবীদের ডেকে নেয়া হয়। এরপর ঝালমুড়ি খাওয়ার কথা বলে একজনের বাসায় নিয়ে দুই বান্ধবীকে ধর্ষণ করে দুই বন্ধু। নির্বিঘ্নে এ অপকর্ম চালাতে বাইরে পাহারায় ছিল আরও ৩ জন।

বুধবার (৯ জুন) নারায়ণগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নুরুন্নাহার ইয়াসমিনের আদালতে দেয়া জবানবন্দিতে বিস্তারিত তুলে ধরেন ভুক্তভোগী দুই কিশোরী। একই সময়ে অভিযুক্ত দুই বন্ধু সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. কাউছার আলমের আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জাবানবন্দি প্রদান করেন। পরে গ্রেপ্তারকৃত ৪ জনকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেয় আদালত।

কারাগারে পাঠানো আসামিরা হলেন নারায়ণগঞ্জ মহানগরের সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল মোড় (চিটাগাং রোড) এলাকার মো. টিটু হোসেনের ছেলে মো. সিফাত (১৮), বন্দর উপজেলার কুশিয়ারা এলাকার আব্দুল মান্নান সরদারের ছেলে সিফাত হোসেন (২১), বন্দরের নবীগঞ্জ ইসলামবাগ এলাকার আলাউদ্দিনের ছেলে সাকিব হোসেন (২৪) ও একই এলাকার মৃত. বাহাউদ্দিনের ছেলে মো. নাঈম (২৪)।

এর আগে, মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে বন্দর উপজেলার নবীগঞ্জ ইসলামবাগ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পরে রাতেই ভুক্তভোগীদের মধ্যে একজন বাদী বন্দর থানায় ৫ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। পুলিশ রাতেই ৪ জনকে গ্রেপ্তার করে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে কোর্ট পুলিশের সহকারী উপ-পরিচালক এএসআই মুক্তা আক্তার বলেন, বন্দরের ধর্ষণ মামলায় ২ ভুক্তভোগী বিজ্ঞ আদালতে ২২ ধারায় জবানবন্দি প্রদান করেছেন। সেই সঙ্গে একই মামলার অভিযুক্ত মো. সিফাত ও সিফাত হোসেন নামের ২ যুবক আদালতে ঘটনার দায় স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন। সে সময় গ্রেপ্তারকৃত ৪ জনকেই কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন বিজ্ঞ আদালত।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, মোবাইলের মাধ্যমে দুই বান্ধবীর সঙ্গে মো. সিফাত ও সিফাত হোসেন নামের দুই বন্ধুর সঙ্গে পরিচয় হয় দুই বান্ধবীর। মঙ্গলবার বিকেলে নবীগঞ্জস্থ কদমরসুল মাজার দেখার জন্য দুই বান্ধবী বাসা থেকে বের হয়। সন্ধ্যায় নবীগঞ্জ খেয়াঘাটে আসামি ৫ জনের সঙ্গে দেখা হয়। পরে ঝালমুড়ি খাওয়ানোর কথা বলে সাকিবের বাসায় নিয়ে যায়। সেখানে দুই বান্ধবীকে মো. সিফাত ও সিফাত হোসেন ধর্ষণ করে এবং সাকিব, নাঈম ও শাকিল বাইরে পাহারায় ছিল। রাতেই ভুক্তভোগীদের মধ্যে একজন বাদী বন্দর থানায় ৫ জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করে।

এসআর/

RTV Drama
RTVPLUS