Mir cement
logo
  • ঢাকা রোববার, ২০ জুন ২০২১, ৬ আষাঢ় ১৪২৮

মন্দিরের গ্রিল ভেঙে অলংকার চুরির ঘটনায় যেভাবে গ্রেপ্তার হলো চোর

মন্দির

নরসিংদী শহরের শ্রী শ্রী গৌর বিষ্ণুপ্রিয়া আশ্রমের বিগ্রহ মন্দিরের গ্রিল ভেঙে অলংকার চুরির ঘটনায় তিন চোরকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শুক্রবার (০৪ জুন) দুপুরে গ্রেপ্তারকৃতদের আদালতের মাধ্যমে জেল-হাজতে প্রেরণ করা হয়। এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে গ্রেপ্তার করা হয় তাদের। তাদের কাছ থেকে মন্দির থেকে চুরি করা অলংকারও উদ্ধার করা হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- নরসিংদী সদরের সোলেমান মিয়ার ছেলে আলামিন, বাদুয়াচর এলাকার মুজিবুর মিয়ার ছেলে রতন মিয়া ও পলাশ উপজেলার গজারিয়া গ্রামের জামালউদ্দিনের ছেলে আবদুল্লাহ।

বুধবার (২ জুন) দিবাগত রাতে আশ্রমটিতে বিগ্রহ মন্দিরের গ্রিল ভেঙে প্রতিমার গলায় ও হাতে থাকা ৩ ভরি স্বর্ণালংকার ও ২০ ভরি ওজনের দুটি রূপার বাঁশি, ১৪টি ধুতি, ১৩টি শাড়ি ও ভক্তদের প্রণামী হিসেবে দেয়া নগদ টাকা চুরি হয়ে যায়। ১২০ বছরের পুরনো এই আশ্রমটির প্রতিষ্ঠাতা উপমহাদেশের খ্যাতনামা কবিয়াল হরিচরণ আচার্য।

পুলিশ ও আশ্রম কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, কয়েকজন ভক্ত ভোরে আশ্রমে প্রণাম করতে গেলে মন্দিরের গ্রিল ভাঙা দেখতে পান। পরে বিষয়টি মন্দির পরিচালনা কমিটির লোকজনকে জানানো হয়। মন্দির পরিচালনা কমিটির সদস্যরা মন্দিরের ভেতরে ঢুকে চুরির বিষয়টি নিশ্চিত হন। পরে খবর পেয়ে বেলা ১১টার দিকে নরসিংদী মডেল থানার পুলিশ ওই আশ্রমে আসেন। রাতেই শহরের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ঘটনার সঙ্গে জড়িত তিন জনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

নরসিংদী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ( ওসি তদন্ত) আতাউর রহমান বলেন, মন্দিরে চুরির খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই রহস্য উদঘাটনে তদন্তে নামে পুলিশ। পরে মন্দির সংলগ্ন সিসি ক্যামেরা বিশ্লেষণ করে অভিযান চালিয়ে গ্রেপ্তার করা হয় তিনজনকে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আলামিন এই চুরির মূল পরিকল্পনাকারী বলে জানা যায়। পরে তাদের আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

এসআর/

RTV Drama
RTVPLUS