Mir cement
logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

  ২২ এপ্রিল ২০২১, ২১:২৯
আপডেট : ২২ এপ্রিল ২০২১, ২১:৩৭

ইশারায় ধর্ষণের ভয়াবহ বর্ণনা দিলেন বাক প্রতিবন্ধী নারী

ইশারায় ধর্ষণের ভয়াবহ বর্ণনা দিলেন বাক প্রতিবন্ধী নারী
ইশারায় ধর্ষণের ভয়াবহ বর্ণনা দিলেন বাক প্রতিবন্ধী নারী

৩ বছর আগে বিয়ে হয় ফতুল্লার ৩৫ বছরের এক বাক প্রতিবন্ধী নারীর। প্রতিবন্ধী হওয়ায় স্বামী তাকে ফেলে চলে যায়। এরপর থেকে বাপের বাড়িতেই থাকতো সে। তার উপর দৃষ্টি পড়ে বাড়ির ভাড়াটে খলিলুর রহমান (৪২) ও পাশের বাড়ির ভাড়াটে মো. রাসেলের (৪৩)। তারা দু’জন আলাদা আলাদাভাবে ওই প্রতিবন্ধী নারীকে বিভিন্ন সময় কৌশলে ধর্ষণ করে। এতে ৩ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছেন ওই বাক প্রতিবন্ধী নারী। ঘটনাটি ঘটেছে নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার পাগলা চিতাশাল এলাকায়।

বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) বিকেলে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, নারায়ণগঞ্জ মো. কাউছার আলমের আদালতে ইশারায় ধর্ষণের বর্ণনা দেন ওই প্রতিবন্ধী নারী। বিষয়টি নিশ্চিত করে কোর্ট পুলিশের সহকারী উপ-পরিচালক এএসআই মো. শাহীন বলেন, ফতুল্লা মডেল থানায় দায়েরকৃত ধর্ষণ মামলায় এক বাক প্রতিবন্ধী নারী ইশারায় জবানবন্দি প্রদান করেছে বিজ্ঞ আদালতে।

এর আগে বৃহস্পতিবার সকালে ওই প্রতিবন্ধী নারীর ভাই বাদী হয়ে ২ জনের বিরুদ্ধে ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলার সূত্রে জানা গেছে, খালেক দেওয়ানের ছেলে খলিলুর রহমান (৪২) ও বজলুর রহমানের ছেলে রাসেল (৪৩) দু’জনই কৌশলে ধর্ষণ করে ওই বাক প্রতিবন্ধী নারীকে। ধর্ষণের ফলে সে ৩ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। এতে প্রতিবন্ধী নারী অসুস্থ হলে বিভিন্ন কবিরাজ দেখানো হলেও কোনো সুফল না পেয়ে একজনের পরামর্শে আল্ট্রাসোনোগ্রাম করানো হয়। রিপোর্টে অন্তঃসত্ত্বা দেখা যায়। পরে এক নারীর মাধ্যমে প্রতিবন্ধীর সঙ্গে কথা বলে ধর্ষকদের শনাক্ত করা হয়।

এ বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) শফিকুল ইসলাম জানান, প্রতিবন্ধী নারীকে ধর্ষণের ঘটনায় মামলা গ্রহণ করা হয়েছে। আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

এসআর/

RTV Drama
RTVPLUS