ধর্ষণের পর হত্যার শিকার সেই স্কুলছাত্রীর বয়স নিয়ে জটিলতা

প্রকাশ | ০৮ জানুয়ারি ২০২১, ২১:৫০

আরটিভি নিউজ
ধর্ষণের পর হত্যার শিকার সেই স্কুলছাত্রীর বয়স নিয়ে জটিলতা

রাজধানীর কলাবাগানে ধর্ষণের পর হত্যার মাস্টারমাইন্ড স্কুলের ‘ও’ লেভেলের শিক্ষার্থী আনুশকা নূর আমিনের (১৭) বয়স নির্ধারণ নিয়ে জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে।

আজ শুক্রবার (০৮ জানুয়ারি) বিকালে ওই ছাত্রীর ময়নাতদন্ত শেষ হলেও বয়স জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে।

পুলিশের সুরতহাল প্রতিবেদনে আনুশকার বয়স ১৯ বছর। আর পরিবারের দাবি ১৭ বছর দুই মাস। পরিবার বয়সের প্রমাণস্বরূপ পাসপোর্টের কপিও দেখিয়েছে। বয়স জটিলতা নিরসনে পুলিশের পক্ষ থেকে ময়নাতদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত বয়সের বিষয়ে মতামত চাওয়া হয়েছে।

আনুশকারের বয়স জটিলতার বিষয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের প্রধান ডা. সোহেল মাহমুদ বলেন, বয়স নির্ধারণের জন্য আমরা এক্সরে বিভাগে পাঠিয়েছি। শুক্রবার এই বিভাগ বন্ধ থাকে। তাই পুলিশ জানিয়েছে সেটা করতে পারেনি। যেহেতু এক্সরে হয়নি তাই তার বডির (শরীর) গঠন দেখে, দাঁত দেখে এবং তার যে ডকুমেন্ট আছে সেগুলো দেখে আমরা একটা বয়স নির্ধারণ করতে পারব। এখানে একটা ক্যালকুলেশনের ব্যাপার আছে। এখনই আমরা এ বিষয়ে বলব না।

আমাদের দেশে সাধারণত সার্টিফিকেটে বয়স কম থাকে, এক্ষেত্রে বয়স নির্ধারণ কিভাবে হবে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমাদের কাজ হলো তার প্রকৃত বয়সটা বের করা। যেহেতু আমরা এক্সরে করতে পারিনি, তাই কিছু মাইলফলক আছে সেগুলো দেখে, তার ডকুমেন্টগুলো নিয়ে আমরা একটা বয়স বলতে পারব।

এফএ