Mir cement
logo
  • ঢাকা রোববার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৪ আশ্বিন ১৪২৮

জলদস্যুদের সঙ্গে কোস্টগার্ডের গোলাগু'লি, আটক ৩

আটক জলদস্যুরা

নোয়াখালী দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার বয়ারচরের টাংকির ঘাট এলাকায় কোস্টগার্ডের সঙ্গে জলদস্যুদের গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এসময় জলদস্যুদের আস্তানা থেকে তিনটি আগ্নেয়াস্ত্র, ৪ রাউন্ড গুলি, ৫টি দেশীয় তৈরি বগিদাসহ ৩ জলদস্যুকে আটক করেছে কোস্টগার্ড। শুক্রবার (৯ জুলাই) ভোরে অভিযান চালিয়ে এসব জলদস্যুদের আটক করা হয়। এসময় কোস্টগার্ড আত্মরক্ষার্থে ১৮ রাউন্ড গুলি করে।

আটক তিন জলদস্যু হলো লক্ষ্মীপুর জেলার রামগতি উপজেলার চরগাজী ইউনিয়নের চর দরবেশ গ্রামের মৃত মো. শাহ আলমের ছেলে মো. আব্দুর রব (৫৫), অন্য দুইজন হলো একই এলাকার আব্দুর রহিম (৩০) ও মো. রবিন (২৪)।

কোস্টগার্ড জানায়, জলদস্যুরা নদীতে ডাকাতি করার প্রস্তুতি নিচ্ছে এই সংবাদ পেয়ে রাতে অভিযান করে কোস্টগার্ডের একটি টিম। কোস্টগার্ডের উপস্থিতি টের পেয়ে জলদস্যুরা গুলি ছুড়লে কোস্টগার্ডও পাল্টা গুলি ছুড়ে। এসময় জলদস্যুরা পালানোর সময় তিনজনকে আটক করা হয়। পরে জলদস্যুদের আস্তানা থেকে একটি পিস্তল, দুটি বন্দুক, ৪ রাউন্ড গুলি, ৪টি পাইরোটেকনিক (সাউন্ড গেনেট) ও ৫টি দেশীয় রামদা উদ্ধার করা হয়।

স্থানীয় এলাকাবাসী জানায়, আব্দুর রব দীর্ঘদিন থেকে নদীতে ডাকাতি করে আসছে। তার বাড়ি হাতিয়া উপজেলার পার্শ্ববর্তী রামগতি উপজেলায়। সে হাতিয়ার সীমানা এলাকা টাংকির ঘাটে সাধারণ মানুষকে জিম্মি করে বিভিন্ন অনৈতিক কার্যক্রম চালিয়ে আসছে। আব্দুর রবের বিরুদ্ধে হাতিয়া থানাসহ পার্শ্ববর্তী অন্যান্য থানায় বেশ কয়েকটি মামলা রয়েছে।

স্টেশন কমান্ডার লে. এ এস এম লুৎফর রহমান বলেন, আটক জলদস্যূদের অস্ত্রসহ হাতিয়া থানায় সোপর্দ করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে কোস্টগার্ড বাদী হয়ে অস্ত্র ও ডাকাতির প্রস্তুতি আইনে মামলা করা হবে।

এসআর/

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS