Mir cement
logo
  • ঢাকা রোববার, ১৩ জুন ২০২১, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

শানু বেগম যেভাবে মৃত থেকে জীবিত হলেন

শানু বেগম যেভাবে মৃত থেকে জীবিত হলেন

বরিশালের মুলাদী উপজেলার বিধবা শানু বেগমকে (৬৫) জীবিত থাকলেও জাতীয় পরিচয় পত্রের ডাটাবেজে তাকে মৃত দেখানো হয়েছে। সমস্যাটি শুধু শানু বেগমের একার নয়, এমন অনেক মানুষের জাতীয় পরিচয় পত্রে ভুল-ত্রুটি রয়েছে। এসব ভুল সংশোধন করতে গিয়েও মানুষকে নানামুখী হয়রানির মুখে পরতে হচ্ছে। শানু বেগমের জাতীয় পরিচয় পত্র সংশোধন হয়েছে থেকে জীবিত দেখানোর কাজ সম্পন্ন হয়েছে। ডাটাবেজে তার জাতীয় পরিচয় পত্রের নম্বর ও নাম দিয়ে সার্চ দিলে এখন তাকে জীবিত দেখাচ্ছে।

বরিশাল আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আলাউদ্দীন এই তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, রোববার শানু বেগমের লিখিত আবেদনটি উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার মাধ্যমে নির্বচান কমিশনের প্রধান কার্যালয়ের জাতীয় পরিচয়পত্র নিবন্ধন অনুবিভাগে পাঠানো হয়। প্রধান কার্যালয়ের জাতীয় পরিচয়পত্র নিবন্ধন অনুবিভাগ থেকে মঙ্গলবার সকাল ১১টার দিকে জানানো হয়, জাতীয় পরিচয়পত্র ডাটাবেজে শানু বেগমকে মৃত শব্দটি সংশোধন করে জীবিত লেখা হয়েছে।

মো. আলাউদ্দীন বলেন, এরপর আমরা শানু বেগমের জাতীয় পরিচয় পত্রের নম্বর ও নাম দিয়ে সার্চ দিয়ে পরীক্ষা করে দেখেছি। এখন তার জাতীয় পরিচয় পত্রটি পুরোপুরি সচল। মৃত দেখানোর কারণে এতদিন তার জাতীয় পরিচয় পত্রের নম্বর ও নাম দিয়ে সার্চ দিলে ইনভালিড দেখানো হচ্ছিল। কিন্তু সেটি সংশোধনের পর এখন সার্চ দিলে পুরোপরি সচল ও শানু বেগমকে জীবিত দেখানো হচ্ছে। ফলে বিধবা ভাতা পেতে শানু বেগমের এখন আর কোনো অসুবিধা থাকল না। পাশাপাশি সরকারি যেকোনো ধরনের সুযোগ-সুবিধা পেতে শানু বেগমকে আর সমস্যায় পরতে হবে না।

মুলাদী উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. শওকত আলী জানান, দুপুর ১২টার দিকে বরিশাল আঞ্চলিক নির্বাচন কার্যালয় থেকে জানানো হয়েছে শানু বেগমের জাতীয় পরিচয় পত্রের ডাটাবেজে মৃত থেকে জীবিত দেখানোর কাজ সম্পন্ন হয়েছে। এরপর বিষয়টি শানু বেগমের বাড়িতে গিয়ে এই সংবাদ জানানো হয়।

শানু বেগম বলেন, নিজেকে জীবিত প্রমাণ করতে পেরে আমি অনেক খুশি ও আনন্দিত।

এফএ

RTV Drama
RTVPLUS