logo
  • ঢাকা সোমবার, ২৫ মে ২০২০, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

করোনা আপডেট

  •     গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে মৃত্যু ২৮ জনের, আক্রান্ত ১ হাজার ৫৩২ জন, সুস্থ হয়েছেন ৪১৫ জন: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

সেই ছবি দিয়ে প্রোফাইল পিকচারও বানিয়েছিলেন এসিল্যান্ড

যশোর প্রতিনিধি, আরটিভি অনলাইন
|  ২৮ মার্চ ২০২০, ১৩:৩৩ | আপডেট : ২৮ মার্চ ২০২০, ১৩:৪২
কান বৃদ্ধ এসিল্যান্ড
ছবি সংগৃহীত
এসিল্যান্ড সাইমা হাসান জনসম্মুখে বৃদ্ধ ভ্যানচালককে কান ধরে উঠবস করালেন। আবার মজার ঘটনা মনে করে সেই ছবি তুললেন নিজের মোবাইল ফোনে। আবার সেই ছবি প্রোফাইল পিকচারও বানিয়েছেন। যদিও এরই মধ্যে তাকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। বিভাগীয় মামলা করার ব্যবস্থাও নেয়া হচ্ছে তার বিরুদ্ধে।

গতকাল শুক্রবার বিকেলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে মণিরামপুরের চিনাটোলা বাজারে তিনি এ ঘটনা ঘটান। এতে সমালোচনার মুখে এ ঘটনায় শাস্তির মুখে পড়তে যাচ্ছেন তিনি। তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শফিউল আরিফ।

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় জনসমাগম নিয়ন্ত্রণে যশোরের মণিরামপুরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাইয়েমা হাসানের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালায়। বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে চিনাটোলা বাজারে অভিযানের সময় ভ্রাম্যমাণ আদালতের সামনে পড়েন প্রথমে দুই বৃদ্ধ। এরমধ্যে একজন বাইসাইকেল চালিয়ে আসছিলেন। অপরজন রাস্তার পাশে বসে কাঁচা তরকারি বিক্রি করছিলেন। এছাড়া একজন ভ্যান চালিয়ে যাচ্ছিলেন। তাদের মুখে মাস্ক ছিল না। এ সময় পুলিশ ওই তিন বৃদ্ধকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে হাজির করলে সাইয়েমা হাসান শাস্তি হিসেবে তাদের কান ধরিয়ে দাঁড় করিয়ে রাখেন। শুধু তাই নয়, এ সময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিজেই তার মোবাইল ফোনে এ চিত্র ধারণ করেন।

শুক্রবার রাতে সেই ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে যায়। তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদের ঝড় ওঠে। একজন সরকারি কর্মকর্তার এমন অমানবিক কর্মকাণ্ডে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন  নেটিজেনরা।

এ প্রসঙ্গে যশোরের জেলা প্রশাসক শফিউল আরিফ বলেন, ছবিটি আমি দেখেছি। এটি তিনি করতে পারেন না। এটা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। এটা আমাদের কাজ নয়। তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ ব্যাপারে জানতে গতকাল শুক্রবার রাতে সহকারী কমিশনার (এসিল্যান্ড) সাইয়েমা হাসানের ফোনে ফোন করা হলে তা বন্ধ পাওয়া যায়। আজ সকালেও তার ফোন বন্ধ রয়েছে।

তবে তিনি সমালোচনা শুরু হলে মনিরামপুরের সাংবাদিকদের বলেছেন, সরকারি দায়িত্ব পালন করেছেন। দায়িত্ব পালনে ভুল হতে পারে। ঘটনাটি নিয়ে তিনি বিব্রত। ভুল হয়ে থাকলে তিনি ক্ষমাপ্রার্থী।

এদিকে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছবিটি প্রকাশের কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই ভাইরাল হয়ে যায়। শুরু হয় সমালোচনার ঝড়।

বাংলাদেশ প্রেস ইন্সটিটিউট (পিআইবি) সদস্য দীপ আজাদ তার ফেসবুকে ছবিসহ পোস্ট দিয়ে লিখেছেন, বৃদ্ধ ভ্যানচালক পেটের দায়ে যশোরের মণিরামপুরের চিনেটোলা বাজারে এসেছিলেন। উপজেলার এসিল্যান্ড সাইমা হাসান জনসম্মুখে তাকে কান ধরে উঠবস করালেন। আবার মজার ঘটনা মনে করে ছবি তুললেন নিজের মোবাইল ফোনে। সেই ছবি আবার প্রোফাইল পিকচার বানালেন। প্রজাতন্ত্রের কর্মচারীদের প্রশিক্ষণ কী এমনভাবে দেয়া হয়? মানুষের জন্য আইন, নাকি আইনের জন্য মানুষ?

যশোর প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এস এম তৌহিদুর রহমান ফেসবুকে লিখেছেন, ভাগ্যিস নির্বাহী বিভাগ থেকে বিচার বিভাগকে আলাদা করা হয়েছিল। নয়তো এতোদিনে কুড়িগ্রাম থেকে যশোরের মণিরামপুর পর্যন্ত কতো মানুষকে যে ফাঁসি কিংবা ক্রসফায়ার দিয়ে ফেলতো সাইয়েমা হাসানদের সরকারি কর্মকর্তারা।

জেবি

corona
দেশ আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ ৩৩৬১০ ৬৯০১ ৪৮০
বিশ্ব ৫৪৯৮৫৮০ ২৩০২০০৪ ৩৪৬৬৮৮
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • দেশজুড়ে এর সর্বশেষ
  • দেশজুড়ে এর পাঠক প্রিয়