বিচার চেয়ে হাসপাতাল ছাড়লেন সাংবাদিক আরিফুল

প্রকাশ | ২১ মার্চ ২০২০, ১৮:১০

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি, আরটিভি অনলাইন
কুড়িগ্রামের সাংবাদিক আরিফুল ইসলাম হাসপাতাল ছেড়ে যাচ্ছেন। ছবি: আরটিভি অনলাইন

সংবাদ প্রতিবেদনের কারণে জেলা প্রশাসনের মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে সাজা পাওয়া এবং ম্যাজিস্ট্রেটের নির্মম নির্যাতনের শিকার কুড়িগ্রামের সাংবাদিক আরিফুল ইসলামকে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন। এ সময় তিনি তাকে নির্যাতনের ঘটনায় সঙ্গে জড়িতদের বিচার দাবি করেন।

আজ শনিবার বিকেলে কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসক তাকে ছাড়পত্র দিলে তিনি বাসায় চলে যান।

প্রসঙ্গত, গত ১৩ মার্চ মধ্যরাতে তার চরুয়া পাড়াস্থ বাসার দরজা ভেঙ্গে জেলা প্রশাসনের ম্যাজিস্ট্রেট বাংলা ট্রিবিউনের সাংবাদিক আরিফুলকে ধরে নিয়ে গিয়ে জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ  আদালতে জেল ও জরিমানা করে। পরে কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসক সুলতানা পারভীনের নির্দেশে তাকে এনকাউন্টার দেয়ার চেষ্টা চালান নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট (আরডিসি) নিজাম উদ্দিন। এক পর্যায়ে এনকাউন্টারে না নিয়ে তাকে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে এনে বিবস্ত্র করে নির্যাতন চালানো হয়।

এ ঘটনায় আরটিভি অনলাইনসহ বিভিন্ন মিডিয়ায় সংবাদ প্রচারিত হলে তোলপাড় শুরু হয়। গত ১৫ মার্চ চাপের মুখে জেলা প্রশাসন থেকে তাকে জামিন দেয়। জামিন পেয়ে হাতে ও শরীরে গুরুতর আহত অবস্থায় আরিফুল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হয়। এ ঘটনায় কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসক সুলতানা পারভীনসহ ৩ ম্যাজিস্ট্রেটকে প্রত্যাহার করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

এদিকে, শনিবার বিকেলে হাসপাতাল ছাড়ার সময় আবারও নিজের ওপর নির্যাতনের বিচার দাবী করেন সাংবাদিক আরিফুল ইসলাম। গত শুক্রবার (২০ মার্চ) কুড়িগ্রাম সদর থানায় সাংবাদিক আরিফুল ইসলাম বাদী হয়ে কুড়িগ্রামের প্রত্যাহার হওয়া জেলা প্রশাসক সুলতানা পারভীন, আরডিসি নাজিম উদ্দিন, সহকারী কমিশনার রিন্টু বিকাশ চাকমা ও রাহাতুল ইসলামসহ জেলা প্রশাসনের অজ্ঞাতনামা ৩০-৩৫ জন কর্মকর্তা ও কর্মচারীর বিরুদ্ধে এজাহার দাখিল করেন।

এজে