logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ৭ ফাল্গুন ১৪২৬

খোলা দোকানের আচার খেয়ে ১৫ শিক্ষার্থী হাসপাতালে

কুড়িগ্রাম (উত্তর) প্রতিনিধি, আরটিভি অনলাইন
|  ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৬:০৪ | আপডেট : ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৬:১২
কুড়িগ্রাম হাসপাতাল চিকিৎসা
কুড়িগ্রামে স্কুলে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়া এক শিক্ষার্থী
কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী উপজেলার চণ্ডিপুর মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ১৫ শিক্ষার্থী হঠাৎ অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। তারা ফুড পয়জনিং বা মাস সাইকোজেনিক ইলনেস রোগে আক্রান্ত হতে পারে বলে ধারণা করছেন চিকিৎসকরা।

এর মধ্যে ১২ শিক্ষার্থীকে নাগেশ্বরী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় ওই স্কুলের বাইরে আচার বিক্রেতা ও ঝালমুড়ি বিক্রেতাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে আসা হয়েছে।

বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক শরিফা রানী আরটিভি অনলাইনকে জানান, ক্লাস চলাকালীন সময়ে হঠাৎ এক শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়। তাকে  অফিস কক্ষে এনে মাথায় পানি দেয়ার পরেও সুস্থ না হলে হাসপাতালে পাঠানো হয়। এরপর একইভাবে অসুস্থ হলে ১২ জনকে নাগেশ্বরী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। বিদ্যালয়টি পাইলট প্রকল্পের অধীন। এ বিদ্যালয়ে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত পড়ানো হচ্ছে।

শিক্ষার্থীরা জানান, স্কুলে আসার পর অ্যাসেম্বলি শেষ করে ক্লাসে গেলে প্রথমে অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী মিম অসুস্থ হয়। এর পরপরই সপ্তম শ্রেণির শিমু, সায়মা, মিম, অষ্টম শ্রেণির লুবনা, মাসুম বিল্লাহ, ববিতা, বিলকিছ, জোবায়ের, পঞ্চম শ্রেণির হানিফ, চতুর্থ শ্রেণির ফাহাদ, ষষ্ঠ শ্রেণির রুবাইয়া, দ্বিতীয় শ্রেণির আঁখিসহ ১৫ জন অসুস্থ হয়। এদের অনেকে স্কুলের কাছে খোলা দোকানে আচার ও ঝালমুড়ি খেয়েছিল। এ কারণে অসুস্থ হয়েছে বলেও অনেকের ধারণা। পরে আচার ও ঝালমুড়ি বিক্রেতাকে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে।

নাগেশ্বরী থানার  ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রওশন কবীর আরটিভি অনলাইনকে জানান, ওই আচার ও ঝালমুড়ি বিক্রেতাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে আসা হয়েছে।

নাগেশ্বরী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা (ভারপ্রাপ্ত) কর্মকর্তা ডা. আবুবক্কর সিদ্দিক আরটিভি অনলাইনকে বলেন, মাস সাইকোজেনিক ইলনেস কিংবা ফুড পয়জনিংয়ের কারণে শিক্ষার্থীরা অসুস্থ হতে পারে। আমাদের মেডিকেল টিম সার্বক্ষণিক স্বাস্থ্যসেবা দিয়ে যাচ্ছে। অবস্থা গুরুতর হলে তাদের কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে রেফার্ড করা হবে।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার শহিদুল ইসলাম আরটিভি অনলাইনকে বলেন, প্রায় ১৫-২০জন শিক্ষার্থী আচার খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ার খবর শুনেছি। তাদেরকে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা নিশ্চিত করার জন্য সংশ্লিষ্টদেরকে বলা হয়েছে।

জেবি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • দেশজুড়ে এর সর্বশেষ
  • দেশজুড়ে এর পাঠক প্রিয়