logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৬ জানুয়ারি ২০২১, ২ মাঘ ১৪২৭

ধর্ষণের ঘটনায় মামলা না নেয়ায় ওসিকে প্রত্যাহার, ধর্ষক আটক

ধর্ষণের ঘটনায় মামলা না নেয়ায় ওসিকে প্রত্যাহার, ধর্ষক আটক
রংপুরে হারাগাছে কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় পুলিশ মামলা না নিয়ে ইউপি চেয়ারম্যানের হাতে তুলে দেয়ায় থানার ওসিকে প্রত্যাহার করে অভিযুক্ত গৃহশিক্ষক সোহেল রানাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

সোমবার (৩ ফেব্রুয়ারি) রাতে তাকে গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের সহকারী কমিশনার ফারুক আহমেদ।

কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের খবর বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশের পর সোমবার রাতে ভুক্তভোগী ধর্ষিতার পরিবারের মামলা নেয় হারাগাছ থানা পুলিশ এবং রাতেই অভিযান চালিয়ে গৃহশিক্ষক সোহেল রানাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এদিকে দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগ ও ধর্ষককে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের হাতে তুলে দেয়ার ঘটনায় হারাগাছ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি নাজমুল কাদেরকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

মামলা সূত্রে জনা যায়, ১ ফেব্রুয়ারি শনিবার হারাগাছের চোরমারা বটেরতল এলাকায় গৃহশিক্ষক সোহেল রানা কৌশলে কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণ করে পালিয়ে যান। এ ঘটনায় ওই কলেজ ছাত্রীর অভিভাবকরা পুলিশে খবর দিলে পলাতক শিক্ষককে আটক করে পুলিশ। একই সঙ্গে ওই কলেজছাত্রীকে উদ্ধার করে হারাগাছ থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু থানার ওসি আইনি ব্যবস্থা না নিয়ে ওইদিন মধ্যরাতে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা রাকিবুল হাসান পলাশ ও একই দল থেকে নির্বাচিত কাউন্সিলর মাহবুবুর রহমানের হাতে তাদের তুলে দেন।

পরে রোববার মধ্যরাতে হারাগাছ ইউপি কার্যালয়ে টাকার বিনিময়ে জোরপূর্বক ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে বিচার বসানো হয় বলে অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী ও তার পরিবারের সদস্যরা।

ধর্ষণের ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে হারাগাছ থানার ওসির ভূমিকা নিয়ে সচেতন মহলে মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হলে বাধ্য হয়ে পুলিশ ভুক্তভোগী পরিবারের মামলা গ্রহণ করে। একই সঙ্গে থানার ওসিকে ক্লোজ করে দ্রুত সময়ের মধ্যে আসামি সোহেল রানাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এসএস

RTV Drama
RTVPLUS