logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৪ আশ্বিন ১৪২৭

সতীনের ছেলেকে হত্যার পর ডাকাতি নাটক সাজালেন সিনথী

  টাঙ্গাইল প্রতিনিধি, আরটিভি অনলাইন

|  ২১ জানুয়ারি ২০২০, ১১:৩১ | আপডেট : ২১ জানুয়ারি ২০২০, ১২:১৮
গ্রেপ্তার সৎ মা সিনথি
বাসায় জোরে সাউন্ড দিয়ে টিভি দেখছিল আট বছরের শিশু সাইফ। সাউন্ড কমাতে বলেন সৎমা সাবরিনা নাহার সিনথী। সাইফ কথা না শোনায় হাত-পা বেঁধে বাসার একটি কক্ষে আটকে রাখা হয় তাকে।৩০ থেকে ৪০ মিনিট পর রুম খুলে দেখতে পান সাইফ বেঁচে নেই। পরে হাত-পা বাঁধা অবস্থাতেই সাইফকে বাথরুমে পানির বালতিতে মুখ ডুবিয়ে রাখেন। পরে ডাকাতির নাটক সাজিয়ে সাইফের বাবাকে ফোন দেন।

গ্রেপ্তারকৃত সাইফের সৎ মা সাবরিনা নাহার সিনথি আদালতে দেয়া স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে একথা জানিয়েছেন।

গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মুনিরা সুলতানা এ জবানবন্দি লিপিবদ্ধ করেন। পরে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়।

টাঙ্গাইল জেলা গোয়েন্দা পুলিশের (ওসি) শ্যামল কুমার দত্ত আরটিভি অনলাইনকে  জানান, টাঙ্গাইল শহরের আমিন বাজার এলাকায় সাইফের বাবা ভাড়া বাসায় থাকতেন। নিহত সাইফের সৎ মা গেল শনিবার রাত আটটার দিকে ফোন করে সাইফের বাবা সালাউদ্দিনকে জানান, অজ্ঞাতনামা তিনজন দুর্বৃত্ত তাদের বাসায় ঢুকে তার ও ছেলের হাত-পা বেঁধে স্বর্ণালঙ্কার লুট করে নিয়ে গেছে। তারা যাওয়ার সময় সাইফকে বাথরুমে পানির বালতিতে ডুবিয়ে রেখে গেছে। ফোন পেয়ে সাইফের বাবা তার কম্পিউটার সেন্টার থেকে বাসায় গিয়ে ছেলেকে উদ্ধার করে জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যান। এ সময় ডাক্তার তাকে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে মৃত ঘোষণা করেন।

খবর পেয়ে টাঙ্গাইল সদর থানা পুলিশ ও গোয়েন্দা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তদন্ত শুরু করে। সাবরিনা নাহারের ঘটনার বর্ণনাটি তাদের রহস্যজনক মনে হয়। পরে পুলিশ সাবরিনা নাহার ও তার স্বামী সালাউদ্দিনকে আটক করে। জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে সাবরিনা সাইফকে হাত-পা বেঁধে ঘরে আটকে রাখার একপর্যায়ে মৃত্যু হয় বলে জানান। পরে তাকে আদালতে হাজির করা হলে সে হত্যার ঘটনা বর্ণনা করে জবানবন্দি দেন।

জেবি

RTVPLUS
bangal
corona
দেশ আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ৩৪৪২৬৪ ২৫০৪১২ ৪৮৫৯
বিশ্ব ৩,০১,২৬,০২০ ২,১৮,৭৪,৯৫৭ ৯,৪৬,৭১২
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • দেশজুড়ে এর সর্বশেষ
  • দেশজুড়ে এর পাঠক প্রিয়