logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

কুমিল্লায় জেলা পরিষদ সদস্যের মরদেহ উদ্ধার

নিহত জেলা পরিষদ সাধন
নিহত জেলা পরিষদ সদস্য খায়রুল আলম সাধন
কুমিল্লায় জেলা পরিষদ সদস্য ও মুরাদনগর উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক  খায়রুল আলম সাধন (৫০) দুর্বৃত্তদের হাতে নিহত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার বিকেলে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের জেলার সদর দক্ষিণ উপজেলার মোস্তফাপুর এলাকা থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত সাধন মুরাদনগর উপজেলার ভুবনঘর গ্রামের মৃত সুলতান মাহমুদের ছেলে।

এদিকে সাধনের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে রাজনৈতিক অঙ্গন তথা এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, খাইরুল আলম সাধন বৃহস্পতিবার সকালে ঢাকার বনশ্রী এলাকার নিজ বাসা থেকে দুই লাখ টাকা নিয়ে মুরাদনগরের উদ্দেশে রওয়ানা করেন। পরে বিকেলে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের জেলার সদর দক্ষিণ উপজেলার মোস্তফাপুর এলাকায় এক ব্যক্তির মরদেহ দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেয়। এ সময় পুলিশ তার পকেটে থাকা জাতীয় পরিচয়পত্র দেখে মরদেহ  শনাক্ত করে। তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

খবর পেয়ে বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী সাধনের মরদেহের কাছে ভিড় জমায়।

পুলিশের ধারণা অন্য কোনও স্থানে তাকে হত্যার পর মরদেহ ফেলে পালিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা।

এ বিষয়ে সদর দক্ষিণ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম আরটিভি অনলাইনকে বলেন, স্থানীয়দের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে মোস্তফাপুর এলাকা থেকে খায়রুল আলম সাধনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এরপর মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে  পাঠানো হয়েছে।

তার বাম চোখে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। কি কারণে কোন জায়গায় তাকে খুন করা হয়েছে সে বিষয়ে অনুসন্ধান চলছে। দ্রুতই অপরাধীদের শনাক্ত করে আইনের আওতায় আনা হবে।

জেবি

RTVPLUS