logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

লবণের দাম বেশি রাখায় ১০ জনকে জরিমানা

চাঁদপুর প্রতিনিধি, আরটিভি অনলাইন
|  ২০ নভেম্বর ২০১৯, ১২:৫৬
লবণ আদালত চাঁদপুর
চাঁদপুরে লবণের দোকানে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান
একটি চক্রের গুজবের কারণে চাঁদপুরেও লবণ নিয়ে হাহাকার সৃষ্টি হয়েছে। এই ঘটনায় চাঁদপুরের জেলা প্রশাসন কঠোর অবস্থানে রয়েছে। পর্যাপ্ত মজুদ থাকার পরেও যারা লবণের দাম বৃদ্ধি করেছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ শুরু করেছে প্রশাসন।

গতকাল মঙ্গলবার দুপুর থেকে রাত পর্যন্ত ১০ জন বিক্রেতাকে  ৪৩ হাজার পাঁচশ’ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। আবার অনেককে আটক করে মুচালেখা রেখে ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দের জিম্মায় ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক মো. মাজেদুর রহমান খান দ্রব্য মূল্যবৃদ্ধির গুজব প্রতিরোধ করার জন্য সাংবাদিক ও ব্যবসায়ীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা করেছেন।

চাঁদপুর সদরে লবণ ও পেঁয়াজ অতিরিক্ত দামে বিক্রি করায় বিপণীবাগের মেসার্স বাচ্চু মিয়া স্টোরকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

এদিকে দুপুরে অপর এক অভিযানে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ছামিউল ইসলাম শহরের ঘোষ পাড়ায় মুদি দোকানদার খোকন মিজিকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করেন। অপর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সেলিনা আক্তার মুদি দোকানদার তুষার ঘোষকে চার হাজার টাকা জরিমানা করেন।

এদিকে লবণ বৃদ্ধির দায়ে ফরিদগঞ্জে মাইকিং হয়েছে। গুজবের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে ও লবণের দাম বৃদ্ধির অপরাধে তিনজনকে পুলিশ আটক ও দুই ব্যবসায়ীর কাছ থেকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

এরা হচ্ছেন ব্যবসায়ী রতন সাহা ও ইব্রাহীম। এদের কাছ থেকে ১০ হাজার হারে ২০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেছেন। একই অভিযোগে ফরিদগঞ্জ থানা পুলিশ মহসীন (৫০), গৌতম সাহা (৪২) ও সুমনকে (৩৬) আটক করে। তাদের থানা হেফাজতে রাখা হয়েছে।

অপরদিকে একই অভিযোগে মতলব দক্ষিণ উপজেলার মাস্টার বাজার, মুন্সিরহাট ও পিংড়া বাজারে অতিরিক্ত মূল্যে লবণ বিক্রির অভিযোগে তিন ব্যবসায়ীকে জরিমানা করেছেন পাঁচ হাজার পাঁচশ’ টাকা। এছাড়া হাজীগঞ্জে একই অভিযোগে দুই ব্যবসায়ীকে নয় হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

 চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক মো. মাজেদুর রহমান খান বলেছেন, লবণ নিয়ে বাজারে এক ধরনের চক্র গুজব ছড়াচ্ছে। এই গুজবের কারণে ব্যবসায়ীরা প্রচুর লবণ বিক্রি করে তাদের দোকান খালি করে দিচ্ছে। এই গুজবের কারণে একটি অসাধু মহলের পকেট ভারি হচ্ছে। মঙ্গলবার বিকেলে চাঁদপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির গুজব প্রতিরোধ করার জন্য সাংবাদিক ও ব্যবসায়ীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

জেলা প্রশাসক আরও বলেন, এই ধরনের গুজব হবে বলে আমরা ধারণা করেছিলাম। গুজব ছড়ানোর পরে আমি মার্কেটে গিয়েছিলাম। গিয়ে দেখি অনেকেই ব্যাগ ভর্তি করে লবণ ক্রয় করছেন। তাদেরকে অতিরিক্ত লবণ ক্রয় করার বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে এলোমেলো জবাব দেন। এই ধরনের গুজব বাংলাদেশে বহু হয়েছে। কিন্তু কোনও কাজে আসেনি। এর মাধ্যমে কেউ জিতেছে আবার কেউ হেরেছে। গুজবের মাধ্যমে যাতে কেউ ফায়দা লুটতে না পারে সে বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে। এ সময় আরও বক্তব্য রাখেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোহাম্মদ শওকত ওসমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ ও প্রশাসন) মো. মিজানুর রহমান, চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল, চাঁদপুর এনএসআই যুগ্ম পরিচালক আজিজুল হক, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক লক্ষণ চন্দ্র সূত্রধর, জেলা মার্কেটিং অফিসার এন.এম. রেজাউল ইসলাম, চাঁদপুর চেম্বার অব কর্মাসের সহ-সভাপতি সুভাষ চন্দ্র রায়, চাল ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি হাজী কাশেম গাজী ও লবণ মিলস্ মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ।

জেবি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • দেশজুড়ে এর সর্বশেষ
  • দেশজুড়ে এর পাঠক প্রিয়