logo
  • ঢাকা বুধবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

সবার সামনে রাস্তায় ফেলে আওয়ামী লীগ কর্মীকে কুপিয়ে হত্যা

বগুড়া প্রতিনিধি, আরটিভি অনলাইন
|  ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ১৭:১৮ | আপডেট : ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ১৭:৪৪
হত্যা অস্ত্র রাস্তা
ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে রাস্তায় ফেলে রাখা হয়েছে আওয়ামী লীগ কর্মী আব্দুর রহীমকে
বগুড়া সদর উপজেলায় শত শত মানুষের সামনে এক আওয়ামী লীগ কর্মীকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার সাবগ্ৰাম ইউনিয়নের অদ্দিরগোলা বাজারে এই হত্যাকাণ্ড ঘটে।

নিহত আওয়ামী লীগ কর্মীর নাম আব্দুর রহীম (৩৫)। তিনি সদর উপজেলার চকঝপু গ্রামের মোজাহের আলীর ছেলে এবং পোনামাছ ব্যবসায়ী।

আব্দুর রহীম গেল ইউপি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছিলেন।

২০১৬ সালে এলাকার আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সাবগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ইসরাইল হক সরদারকে কুপিয়ে আহত করার ঘটনায় দায়ের করা মামলার প্রধান আসামি ছিলেন নিহত রহিম।

বগুড়া সদর থানার ওসি এসএম বদিউজ্জামান এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে আব্দুর রহীম মোটর সাইকেলে করে অদ্দিরগোলা বাজারের মধ্য দিয়ে বাড়ির দিকে যাচ্ছিলেন। এ সময়  আগে থেকে ওৎ পেতে থাকা একদল দুর্বৃত্ত তাকে ঘেরাও করে। এরপর শত শত মানুষের সামনে তাকে মোটরসাইকেল থেকে ফেলে দিয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপাতে থাকে। একপর্যায়ে তার ডান হাতের কবজি শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। ঘটনাস্থলেই রহিমের মৃত্যু হয়। পরে দুর্বৃত্তরা বাজারের উত্তর দিকের পাকা রাস্তা দিয়ে পালিয়ে যায়।

দুর্বৃত্তরা স্থানীয় এবং অনেকের পরিচিত হওয়ায় প্রত্যক্ষদর্শীদের কেউ আব্দুর রহীমকে উদ্ধারে এগিয়ে আসেননি। হত্যাকাণ্ডের পরপরই  অদ্দিরগোলা বাজারের তিন শতাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান মুহূর্তের মধ্যে বন্ধ করে দেওয়া হয়। রাস্তায় পড়ে থেকে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে আব্দুর রহীম ঘটনাস্থলেই মারা যান। খবর পেয়ে বগুড়া সদর সার্কেলের  অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তী ও সদর থানার অফিসার ইনচার্জ বদিউজ্জামানসহ গোয়েন্দা পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থলে পৌঁছে। পুলিশ নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়।

ঘটনাস্থল পরিদর্শনকারী বগুড়া সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তী আরটিভি অনলাইনকে জানান, হত্যাকাণ্ডের পরপরই পুলিশের একাধিক টিম জড়িতদের শনাক্ত ও গ্রেপ্তার করতে মাঠে নেমেছে।

বগুড়া সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ( ওসি) এস এম বদিউজ্জামান জানান,  মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ জিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, পূর্ব শত্রুতার জেরে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে। তদন্ত করলে এই হত্যাকাণ্ডের সঠিক কারণ জানা যাবে।

জেবি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • দেশজুড়ে এর সর্বশেষ
  • দেশজুড়ে এর পাঠক প্রিয়