logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

টাকা দিয়েও কুপ্রস্তাবে রাজি করাতে না পারায় স্কুলছাত্রীকে তুলে নিয়ে ধর্ষণ

নেত্রকোনা প্রতিনিধি, আরটিভি অনলাইন
|  ০১ নভেম্বর ২০১৯, ১১:০০ | আপডেট : ০১ নভেম্বর ২০১৯, ১২:৩৯
ধর্ষণ ছাত্রী মাহফিল
ফাইল ছবি
নেত্রকোনায় পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রীকে অপহরণ করে হাত-পা ও মুখ বেঁধে দুইদিন আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার ভোর চারটার দিকে ওই শিক্ষার্থী পালিয়ে এসে তার মা-বাবাকে ঘটনাটি জানায়। পরে তাকে নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্বজনরা জানায়, গেল ২৯ অক্টোবর রাতে শিশুটি তার নানীর সঙ্গে পাশের মহল্লায় ওয়াজ শুনতে যায়। সেখান থেকে কয়েকজন বখাটে তাকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে একটি ঘরে আটকে রেখে হাত-পা ও মুখ বেঁধে দুইদিন দিন ধরে ধর্ষণ করে।

গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শিশুটি জানায়, ভাজনীপাড়া গ্রামের একলাস মিয়ার বখাটে ছেলে পিয়েল মিয়াসহ (২৫) আরও দুইজন তাকে ওয়াজ মাহফিল থেকে ডেকে নেয়। একটু দূরে গিয়ে পিয়াল তার হাতে কিছু টাকা গুঁজে দিয়ে কুপ্রস্তাব দেয়। এতে সে রাজি না হওয়ায় মুখ বেঁধে তাকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে যায়। কিছুক্ষণ পর একটি ঘরে নিয়ে পিয়াল তাকে ধর্ষণ করে। পরে হাত-পা ও মুখ বেঁধে তাকে ঘরের মাচায় ফেলে রাখা হয়। সারাদিন এভাবে সেখানে পড়ে তাকে সে। পরদিন সন্ধ্যায় তাকে সেখান থেকে বের করে মাচার নিচে মাটিতে ফেলে রাখা হয়।

---------------------------------------------------------------
আরো পড়ুন: ছেলে করলো ধর্ষণ, মা করালেন গর্ভপাত
---------------------------------------------------------------

এ ঘটনায় নেত্রকোনা মডেল থানায় একটি জিডি করেছেন ভুক্তভোগী শিশুটির বাবা।

শিশুটির বাবা জানান, ভাজনীপাড়া গ্রামের একলাস মিয়ার বখাটে ছেলে পিয়াল তার মেয়েকে অপহরণ করে দুই দিন আটকে রেখে ধর্ষণ করেছে। দীর্ঘদিন ধরেই পিয়াল তার মেয়েকে উত্ত্যক্ত করতো। এই ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন তিনি।

নেত্রকোনা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তাজুল ইসলাম জানান, এ ব্যাপারে থানায় একটি জিডি হয়েছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নেত্রকোনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এস এম আশরাফুল আলম শিশুটির সঙ্গে কথা বলে জানান, তাকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে শিশুটি জানিয়েছে। আমরা ঘটনাটি গুরুত্বের সঙ্গে দেখছি। অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

জেবি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • দেশজুড়ে এর সর্বশেষ
  • দেশজুড়ে এর পাঠক প্রিয়