logo
  • ঢাকা সোমবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৯, ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

বাবা-মাকে বেঁধে রেখে মাদরাসাছাত্রীকে গণধর্ষণ, গ্রেপ্তার ১

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি
|  ১৮ আগস্ট ২০১৯, ১৮:২১ | আপডেট : ১৮ আগস্ট ২০১৯, ১৯:০০
গণধর্ষণ
লাল্টু মিয়া নামে এজাহারভুক্ত এই আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ, ছবি: আরটিভি অনলাইন
চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গায় ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ুয়া এক মাদরাসাছাত্রী গণধর্ষণের শিকার হয়েছে। শনিবার দিনগত রাতে উপজেলায় নতিডাঙ্গা আবাসনে এই ঘটনা ঘটে।

ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে আজ রোববার দুপুরে তিনজনের নাম উল্লেখ করে আলমডাঙ্গা থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। পরে লাল্টু মিয়া (৩৫) নামে এজাহারভুক্ত এক আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। নির্যাতনের শিকার ওই ছাত্রীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য বিকেলে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

---------------------------------------------------------------
আরো পড়ুন: ঠাকুরগাঁওয়ে সাংবাদিকের উপর সন্ত্রাসী হামলা, আটক ১
---------------------------------------------------------------

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, আলমডাঙ্গা উপজেলার নতিডাঙ্গা আবাসন এলাকার জয়নালের ছেলে লাল্টু (৩৫), সভা ভোরামীর ছেলে শরীফুল (৪০) ও মিলনের ছেলে রাজু (৩০) প্রায়ই ওই ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করত। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর মা শীলা খাতুন বাদী হয়ে চুয়াডাঙ্গা আদালতে মাসখানেক আগে শ্লীলতাহানির অভিযোগে একটি মামলা করেন। তবে মামলা তুলে না নিলে ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করা হবে বলে বারবার হুমকি দিয়েছিল আসামিরা। আজ রোববার ওই মামলার সাক্ষ্য গ্রহণের দিন ধার্য ছিল। আদালতে যাতে সাক্ষ্য দিতে না পারে সেজন্য শনিবার দিনগত রাতে আসামিপক্ষের লোকজন মধ্যরাতে ওই ছাত্রীর বাবা মাকে মারধর করে বেঁধে রাখে। পরে ছাত্রীকে পাশের একটি বাঁশবাগানে নিয়ে গণধর্ষণ করে।

আলমডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসাদুজ্জামান মুন্সী জানান, ধর্ষণের ঘটনায় লাল্টু নামে এক আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। নির্যাতনের শিকার ওই ছাত্রীকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • দেশজুড়ে এর সর্বশেষ
  • দেশজুড়ে এর পাঠক প্রিয়