logo
  • ঢাকা সোমবার, ২১ অক্টোবর ২০১৯, ৫ কার্তিক ১৪২৬

জিন তাড়ানোর নামে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ করলেন ইমাম

নীলফামারী প্রতিনিধি
|  ১৪ আগস্ট ২০১৯, ১১:৫১ | আপডেট : ১৪ আগস্ট ২০১৯, ১১:৫৭
ধর্ষণ, জিন, মামলা
নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলায় জিন তাড়ানোর নামে অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে এক ইমামের বিরুদ্ধে। ওই ইমামের নাম সাকিব আলী (৩০)।

তিনি সৈয়দপুর উপজেলার কাশিরাম বেলপুকুর ইউনিয়নের একটি মসজিদের ইমাম। তার বাড়ি রংপুরের কোতোয়ালি থানায়। অভিযোগের ভিত্তিতে ওই ইমামকে গেল রোববার রাতে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, অষ্টম শ্রেণির ছাত্রীর ওপর জিন ভর করেছে জানিয়ে ইমাম সাকিব আলীকে ঝাড়ফুঁক দেওয়ার জন্য পরিবারের লোকজন অনুরোধ করেন। ইমাম দুই দফা ওই ছাত্রীকে ঘরে বসিয়ে ঝাড়ফুঁক দেন। এ সময় ছাত্রীর পরিবারের সদস্যদের ঘরের বাইরে অবস্থান করতে বাধ্য করেন সাকিব। রোববার ঘরের মধ্যে বসে ঝাড়ফুঁক দেওয়ার সময় মেয়েটি চিৎকার করে। বাড়ির লোকজন ঘরের ভেতর গিয়ে ধর্ষণের বিষয়টি জানতে পারেন। এ সময় প্রতিবেশীরা সাকিবকে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেন।  

ঘটনার দিন রাতেই মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে থানায় ধর্ষণের মামলা দায়ের করেন। গ্রেপ্তারের পর গেল সোমবার সাকিবকে জেলহাজতে পাঠায় পুলিশ। গেল মঙ্গলবার নীলফামারী আধুনিক সদর হাসপাতালে মেয়েটির মেডিকেল পরীক্ষা সম্পন্ন হয়।

সৈয়দপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবুল হাসনাত খান বলেন, মেয়েটির জবানবন্দী রেকর্ড করা হয়েছে। ইমাম সাকিব মেয়েটিকে ধর্ষণের কথা পুলিশের কাছে স্বীকার করেছেন।

জেবি/পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়