logo
  • ঢাকা রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ১ পৌষ ১৪২৬

ছেলে ধরা সন্দেহে মান্দায় ৬ মৎস্যজীবীকে গণপিুটনি

নওগাঁ প্রতিনিধি
|  ২১ জুলাই ২০১৯, ১২:২১ | আপডেট : ২১ জুলাই ২০১৯, ১২:৩০
গণপিটুনি
ছেলে ধরা গুজবে গণপিটুনির শিকার ৬ জনকে উদ্ধার
ছেলে ধরা সন্দেহে নওগাঁর মান্দা উপজেলায় ছয়জন মৎস্যজীবীকে গণপিুটনি দিয়ে পুলিশে দিয়েছে স্থানীয়রা। 

আজ রোববার (২১ জুলাই) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার কুসম্বা ইউনিয়নের বুড়িদহ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, পুকুরে ছোট মাছ ধরার জন্য পুকুর মালিক সনজিত ছয়জন মৎস্যজীবীকে নিয়ে আসেন। চুক্তি ছিল পুকুর মালিক নিবেন মাছের ৭০ শতাংশ এবং মৎস্যজীবীরা ৩০ শতাংশ। সকাল থেকে ছয়জন মৎস্যজীবী পুকুরে মাছ ধরছিলেন। মাছ ধরার সময় মৎস্যজীবীরা তিনটি বড় মাছ গোপনে বস্তার মধ্যে রেখে দেয়। 

পরে পুকুর মালিক বিষয়টি বুঝতে পারেন। সনজিত বস্তা দেখতে চাইলে মৎস্যজীবীরা দেখাতে রাজি হচ্ছিলেন না। এক সময় তারা দৌড় দিয়ে পালানোর চেষ্টা করেন। এতেই ঘটে বিপত্তি। পাড়ার লোকজন ছেলেধরা সন্দেহে চিৎকার দিয়ে তাদের ধরে গণপিটুনি দেয়। পরে থানা পুলিশ তাদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন।

মান্দা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোজাফ্ফর হোসেন বলেন, ছেলেধরা বিষয়টি গুজব। বাস্তবে তারা নিরীহ মৎস্যজীবী। তারা মাছ শিকার করে জীবিকা নির্বাহ করে থাকেন। মাছ শিকারের জালসহ তাদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। তাদের বাড়ি সদর উপজেলায় বলে জানান তিনি।

এসএস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • দেশজুড়ে এর সর্বশেষ
  • দেশজুড়ে এর পাঠক প্রিয়