কুড়িগ্রামে বন্যার পানিতে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

প্রকাশ | ১১ জুলাই ২০১৯, ১৫:০০ | আপডেট: ১১ জুলাই ২০১৯, ১৫:১০

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি
ছবি: সংগৃহীত

তিন দিনের অবিরাম বর্ষণ ও উজানের পাহাড়ি ঢলে কুড়িগ্রামের সব নদ-নদীতে পানি বাড়তে শুরু করেছে।

পানি দ্রুত গতিতে বাড়তে থাকায় দুই এক দিনের মধ্যে ব্রহ্মপুত্রের পানি বিপদসীমা অতিক্রম করতে পারে বলে আশঙ্কা করছে স্থানীয় পানি উন্নয়ন বোর্ড।

এদিকে নদ-নদীর পানি বাড়ায় চরাঞ্চলের শতাধিক গ্রামের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। নিমজ্জিত হয়েছে নিচু এলাকার কিছু কিছু বীজতলা, ভুট্টা ও সবজির ক্ষেত।

কুড়িগ্রাম সদর উপজেলাসহ সবকটি উপজেলার শতাধিক চর গ্রামের নিচু এলাকাগুলো প্লাবিত হয়েছে। ঘর-বাড়িতে পানি উঠার উপক্রম হয়েছে। অনেকে বন্যার আশঙ্কায় উঁচু জায়গায় যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে।

এদিকে, পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আরিফুল ইসলাম জানান,  আগামী ৪৮ ঘণ্টায় ব্রহ্মপুত্রের পানি বিপদসীমা অতিক্রম করবে এবং বেশকিছু এলাকা প্লাবিত হবে। তবে ব্যাপক বন্যার কোনও আশঙ্কা নেই বলে তিনি আশ্বস্ত করেছেন।

তিনি আরও জানান, ঝুঁকিপূর্ণ বাঁধগুলো নজরদারির মধ্যে রাখা হয়েছে। ভাঙন রোধে প্রয়োজনীয় জিও ব্যাগ প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড জানায়, গেল ২৪ ঘণ্টায়  ধরলা নদীর পানি ৩৭ সেন্টিমিটার, ব্রহ্মপুত্রের চিলমারী পয়েন্টে ২৯ সেন্টিমিটার ও নুনখাওয়া পয়েন্টে ৪৫ সেন্টিমিটার এবং তিস্তায় ১৩ সেন্টিমিটার পানি বৃদ্ধি পেয়ে এখনও বিপদসীমার অনেক নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

জেবি