logo
  • ঢাকা সোমবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১১ ফাল্গুন ১৪২৬

আটকের দুই ঘণ্টা পর ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক ব্যবসায়ী নিহত

টেকনাফ প্রতিনিধি
|  ১১ জুলাই ২০১৯, ১০:২২ | আপডেট : ১১ জুলাই ২০১৯, ১০:৪৪
পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে আব্দুল মালেক (৩৮) নামে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত
কক্সবাজারের টেকনাফে আটকের দুই ঘণ্টা পর পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে আব্দুল মালেক (৩৮) নামে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। 

নিহত আব্দুল মালেক সদর ইউনিয়নের পুরাতন পল্লনপাড়া এলাকার মকবুল মৃত মকবুল আহমদের ছেলে। 

আজ বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) ভোরে টেকনাফ সদর ইউনিয়নের উত্তর লেঙ্গুরবিল মালির মাঠছড়া পাহাড়ের পাদদেশে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। 

পুলিশ জানায়, ঘটনাস্থল থেকে দুইটি এলজি, ১৩ রাউন্ড তাজা কার্তুজ, ২১ রাউন্ড কার্তুজের খোসা এবং পাঁচ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় পুলিশের তিন সদস্য আহত হন।

টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ জানান, ১০ জুলাই পৌনে ১০ টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে থানায় দায়িত্বরত এসআই স্বপন চন্দ্র দাসের নেতৃত্বে একদল পুলিশ বাস টার্মিনালের সামনে প্রধান সড়ক থেকে আব্দুল মালেককে গ্রেপ্তার করে। পরে আটককৃত আসামিকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, লেঙ্গুরবিল পাহাড়ের পাদদেশে ইয়াবার একটি বড় চালান মজুদ রয়েছে। রাত ১২টার দিকে তাৎক্ষনিকভাবে পুলিশের একটি দল ওই ইয়াবার বড় চালানটি উদ্ধারে ওই স্থানে পৌঁছে। এসময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে আব্দুল মালেকের সহযোগী ও অস্ত্রধারী ইয়াবা ব্যবসায়ীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়। এতে এএসআই রামধন চন্দ্র দাস, কনস্টেবল আব্দু শুক্কুর ও রাজু মজুমদার আহত হন। নিজেদের জীবন ও সরকারি সম্পদ রক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছুঁড়ে। পুলিশের পক্ষ থেকে ৫০ রাউন্ড গুলি চালানো হয়। এক পর্যায়ে আটককৃত ওই যুবক গুলিবিদ্ধ হন। গুলি বিনিময়ের কিছুক্ষণ পর অস্ত্রধারীরা পিছু হটে। ঘটনাস্থলে ব্যাপক তল্লাশি করে অস্ত্র ও ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। গুলিবিদ্ধ যুবককে টেকনাফ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক দ্রুত কক্সবাজার সদর হাসপাতালে রেফার করেন তাকে। পরে এসআই কামরুজ্জামান সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ওসি প্রদীপ আরও জানান, তার বিরুদ্ধে অস্ত্র ও মাদকের ৬টি মামলা রয়েছে। আহত তিন পুলিশ সদস্য টেকনাফ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে প্রাথমিকভাবে চিকিৎসা নিয়েছেন। পাশাপাশি এ ঘটনায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে।

এসএস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • দেশজুড়ে এর সর্বশেষ
  • দেশজুড়ে এর পাঠক প্রিয়
---SELECT id,hl1,hl2,hl3,rpt,short_hl2,cat_id,parent_cat_id,prefix_keyword,sum,dtl,hl_color,tmp_photo,video_dis,alt_tag,IFNULL(hierarchy, 99) AS hierarchy,entry_time FROM news AS news LEFT JOIN mn_hierarchy AS mnh ON mnh.news_id = news.id AND mnh.mid = 9 WHERE cat_id LIKE "%#9#%" AND publish = 1 GROUP BY id ORDER BY hierarchy ASC, entry_time DESC LIMIT 2
---SELECT id,hl1,hl2,hl3,rpt,short_hl2,cat_id,parent_cat_id,prefix_keyword,sum,dtl,hl_color,tmp_photo,video_dis,alt_tag,IFNULL(hierarchy, 99) AS hierarchy,entry_time FROM news AS news LEFT JOIN mn_hierarchy AS mnh ON mnh.news_id = news.id AND mnh.mid = 8 WHERE cat_id LIKE "%#8#%" AND publish = 1 GROUP BY id ORDER BY hierarchy ASC, entry_time DESC LIMIT 2