logo
  • ঢাকা রবিবার, ২১ জুলাই ২০১৯, ৬ শ্রাবণ ১৪২৬

আজ বসতে পারে পদ্মা সেতুর ১৪তম স্প্যান

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি
|  ২৮ জুন ২০১৯, ০৯:৩২ | আপডেট : ২৮ জুন ২০১৯, ১০:৩৯
পদ্মা সেতু
বসার অপেক্ষায় রয়েছে  পদ্মা সেতুর ১৪তম স্প্যান '৩ সি'।  পিলারের মুখে দৈর্ঘ্যে ও প্রস্থে ৪৫-৩০ মিটার পলিমাটি জমায় ড্রেজিংয়ের মাধ্যমে অপসারণ শেষ হলেই শুরু হবে স্প্যান '৩ সি' বসানোর প্রক্রিয়া।

সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে শুক্রবার বসানো হতে পারে পদ্মা সেতুর ১৪তম স্প্যান '৩সি'। বিষয়টি জানিয়েছেন পদ্মা সেতু প্রকৌশলী (মূল সেতু) দেওয়ান মো. আব্দুল কাদের।

স্প্যানটি বসবে মুন্সীগঞ্জের মাওয়া প্রান্তের ১৫ ও ১৬ নম্বর পিলারের ওপর। গত ২৫ মে ১৩তম স্প্যান বসানোর প্রায়  এক মাস তিন দিনের মাথায় ১৪ তম স্প্যান বসতে যাচ্ছে। স্প্যানটি বসানো হলে দৃশ্যমান হবে পদ্মা সেতুর দুই হাজার ১০০ মিটার।

বৃহস্পতিবার সকাল ১১টার দিকে মুন্সীগঞ্জের মাওয়া কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে ধূসর রংয়ের ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের ও তিন হাজার ১৪০ টন ওজনের  স্প্যানটিকে তিন হাজার ৬০০ টন ধারণ ক্ষমতার ‘তিয়ান ই’ ক্রেনে বহন করে সেতুর ১৩ নম্বর পিলারের সামনে নোঙ্গর করে রাখা হয়। 

পদ্মা সেতু প্রকৌশলী (মূল সেতু) দেওয়ান মো. আব্দুল কাদের আরও জানান, ১৫ ও ১৬ নম্বর পিলারের মুখে দৈর্ঘ্যে ও প্রস্থে ৪৫/৩০ মিটার পলিমাটি জমায় ড্রেজিংয়ের মাধ্যমে পলি অপসারণের কাজ চলমান রয়েছে।

শুক্রবার দুপুর পর্যন্ত চলবে এ ড্রেজিং কাজ। ড্রেজিং কাজ শেষ হলেই স্প্যান '৩ সি' বসানোর প্রক্রিয়া শুরু হবে।

এর আগে বৃহস্পতিবার (২৭জুন) মুন্সীগঞ্জের মাওয়া প্রান্তের ১৫ ও ১৬ নম্বর পিলারের ওপর স্প্যান বসানোর পরিকল্পনা নেয় সেতু কর্তৃপক্ষ। কিন্তু ড্রেজারের মাধ্যমে পলি অপসারণের কাজ চলায় বৃহস্পতিবার বসানো হয়নি স্প্যান '৩ সি'।

এদিকে, পদ্মা সেতুর কাজ দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলেছে। পদ্মা সেতুর ৪২টি পিলারের মধ্যে ২৯টি পিলারের কাজ শেষ হয়েছে। বাকি ১৩টি পিলারের কাজ চলমান রয়েছে। এছাড়াও ২৭ টি রোডওয়ে স্লাব বসানো হয়েছে বলে প্রকৌশলী সূত্রে জানা গেছে।

প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হয়। সেতু নির্মাণে ব্যয় হচ্ছে ৩৩ হাজার কোটি টাকা। মূল সেতু নির্মাণের জন্য কাজ করছে চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি (এমবিইসি) ও নদী শাসনের কাজ করছে দেশটির আরেকটি প্রতিষ্ঠান সিনো হাইড্রো করপোরেশন।

ছয় দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এ বহুমুখী সেতুর মূল আকৃতি হবে দোতলা। কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে নির্মিত হচ্ছে এ সেতুর কাঠামো।

জেবি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়