দ্রুত গতিতে এগোচ্ছে বাঁধ নির্মাণের কাজ, খুশি পদ্মা পাড়ের মানুষ

প্রকাশ | ১৬ জুন ২০১৯, ১৬:০১ | আপডেট: ১৬ জুন ২০১৯, ১৬:০৭

শরীয়তপুর প্রতিনিধি

শরীয়তপুরে পদ্মার ডান তীর রক্ষায় বেড়িবাঁধ নির্মাণ ও ড্রেজিং এর কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলেছ। এতে খুশি পদ্মা পাড়ের মানুষ। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে জেলার নড়িয়া ও জাজিরার প্রায় ১০ কিলোমিটার এলাকার মানুষ নদী ভাঙন থেকে স্থায়ীভাবে রক্ষা পাবে। 

প্রায় ৭০ বছর ধরে এভাবেই পদ্মা নদীগর্ভে বিলীন হচ্ছে শরীয়তপুরের নড়িয়া ও জাজিরা উপজেলার বিস্তীর্ণ এলাকা। শুধু গত বছরই ভাঙনে নড়িয়ার প্রায় সাড়ে ছয় হাজার পরিবার গৃহহীন হয়। পদ্মার গ্রাস থেকে বাদ যায়নি বাজার, বহুতল ভবন, রাস্তা-ঘাট, স্কুল-কলেজ ও উপাসনালয়সহ কৃষি জমি কোনও কিছুই। 

নদী ভাঙন রোধে ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে প্রায় ১১শ’ কোটি টাকা ব্যয়ে ৮ দশমিক ৯ কিলোমিটার বেড়িবাঁধ নির্মাণ প্রকল্প হাতে নেয় সরকার। পানি উন্নয়ন বোর্ডের পরিকল্পনায় নৌবাহিনীর খুলনা শিপইয়ার্ড ও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান বেঙ্গল গ্রুপ কাজ শুরু করে। যা এখন দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে।   

বেড়িবাঁধ নির্মাণের পাশাপাশি নদীর গতিপথ পরিবর্তনে ড্রেজিং করা হচ্ছে। প্রকৌশলীরা বলছেন, ড্রেজিং কাজ শেষ হলে নদীর ডান তীরে পানির চাপ থাকবে না, ফলে কমবে ভাঙন প্রবণতা। 

এরই মধ্যে প্রকল্পটির প্রায় ৭৫ ভাগ কাজ শেষ হয়েছে। নির্ধারিত সময়ের আগে প্রকল্পের পুরো কাজ শেষ হবে বলে আশা করছে পানি উন্নয়ন বোর্ড।

প্রকল্প এলাকা পরিদর্শন করে পানি সম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম বলেন, সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে দ্রুততার সঙ্গে এই বাঁধ নির্মাণের কাজ করা হচ্ছে।

এসএস