logo
  • ঢাকা শনিবার, ২৪ আগস্ট ২০১৯, ৯ ভাদ্র ১৪২৬

যাত্রীকে চাকায় পিষে মারা বাসের চালক গ্রেফতার

গাজীপুর প্রতিনিধি
|  ১০ জুন ২০১৯, ১৯:০৪ | আপডেট : ১০ জুন ২০১৯, ১৯:২০
ফাইল ছবি
বাসের ভাড়া নিয়ে বাকবিতণ্ডার জেরে যাত্রী সালাউদ্দিন (৩৫)কে চাকায় পিষে মারা ‘আলম এশিয়া পরিবহন প্রাইভেট লিমিটেডে’র চালক রোকনউদ্দিন ওরফে ফজলুল হককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

bestelectronics
আজ সোমবার (১০ জুন) বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে ময়মনসিংহের ধোবাউড়ার এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

এ বিষয়ে গাজীপুর জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ রাসেল শেখ সাংবাদিকদের বলেন,  যাত্রীকে পিষে মারার পর থেকে রোকন পলাতক ছিল। গোপনসূত্রে জানতে পারি ধোবাউড়ার লুকিয়ে আছে। এরপর অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গতকাল রোববার (৯ জুন) সকালে ঈদের ছুটিতে সস্ত্রীক ময়মনসিংহের ফুলপুর শ্বশুরবাড়ি থেকে গাজীপুরে কর্মস্থলে ফেরার পথে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে যাত্রী সালাউদ্দিনকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে চাকায় পিষে মারা হয়।

জানা যায়, বাসের ভেতরে ‘ড্রাইভার’ পরিচয় দিয়ে সালাউদ্দিন ভাড়া কিছু টাকা কম রাখার জন্য অনুরোধ করে। এই নিয়ে সালাউদ্দিন ও তার স্ত্রীর সঙ্গে চালকের সহযোগীর বাকবিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে চালকের সহযোগী লাথি মেরে সালাউদ্দিনকে ফেলে দেবে বাসের ভেতরে প্রকাশ্যেই হুমকি দেয়। ভয় পেয়ে সালাউদ্দিন তার ভাই জামালকে টেলিফোনে বাঘের বাজার বাসস্ট্যান্ডে এসে দাঁড়াতে বলেন। পরে জামাল আরো ৫-৬ জন লোক নিয়ে বাঘের বাজার দাঁড়িয়ে থাকেন।

সালাউদ্দিন ও তার স্ত্রীকে বহনকারী আলম এশিয়ার দ্রুতগামী বাসটি (ঢাকা মেট্রো-গ-১১-৬৩-৬৬) স্ট্যান্ডে দাঁড়িয়ে থাকা স্বজনরা কিছু বুঝে ওঠার আগেই লাথি মেরে সালাউদ্দিনকে বাস থেকে ফেলে দেয়। কিন্তু তার স্ত্রীকে নিয়ে বাস চলে যেতে থাকে। স্ত্রীকে না নামিয়ে বাস চলে যেতে থাকলে সালাউদ্দিন সড়ক থেকে উঠে গাড়ির সামনে গিয়ে গতিরোধ করার চেষ্টা করেন। এ সময় স্বজনদের সামনে চালক বাসটি সালাউদ্দিনের ওপর উঠিয়ে দেয়।

গাজীপুরের মাওনা হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দেলোয়ার হুসেন জানান, এই ঘটনায় সালাউদ্দিনের ছোট ভাই জালাল মিয়া বাসের ড্রাইভার, কন্ডাকটর ও হেলপারসহ কয়েকজনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

জিএ/ এমকে  

bestelectronics bestelectronics
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়