সেপটিক ট্যাংক থেকে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার

প্রকাশ | ২৪ মে ২০১৯, ১০:২৪

গাজীপুর প্রতিনিধি

রাজধানীর শেরেবাংলা নগর এলাকা থেকে নিখোঁজের ১২দিন পর গাজীপুর থেকে এক বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার সকালে সিটি করপোরেশনের কামারজুড়ি এলাকার একটি সেপটিক ট্যাংক থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহত বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের নাম ইসমাইল হোসেন জিশান। তিনি গাজীপুর সিটি করপোরেশনের বোর্ডবাজারের কাথোরা এলাকার সাব্বির হোসেন শহীদের ছেলে এবং ইউরোপীয় ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ নামের একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ছিলেন। এই ঘটনায় একজনকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহতের স্বজন ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, জিশান বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশুনার পাশাপাশি উবার চালক ছিলেন। গেল ১২ মে আটক হাসিবুল ইসলাম হাসিব শেরেবাংলা নগর থেকে তার মোটরসাইকেলটি ভাড়া নিয়ে গাজীপুরে আসেন। এরপর থেকে নিখোঁজ ছিলেন জিশান। পরে জিশানের খোঁজে তার স্বজনরা থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন। পরে পুলিশ ঘটনার তদন্তে নামে। তদন্তে হাসিবের সম্পৃক্ততা পেলে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরে তার দেওয়া তথ্যমতে একটি সেপটি ট্যাংক থেকে জিশানের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে হাসিব জানায়, তিনি কামারজুড়ি এলাকায় ভাড়া বাসায় বসবাস করেন। গত ১২তারিখ রাতেই জিশানকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর মরদেহ সেপটিক ট্যাংকে ফেলে দেওয়া হয়। গ্রেপ্তারকৃত হাসিবের কাছ থেকে জিশানের ব্যবহৃত মোবাইল সেট ও মোটরসাইকেলটি উদ্ধার করেছে পুলিশ।

গাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.ইসমাইল হোসেন আরটিভি অনলাইনকে বলেন, মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

জেবি