logo
  • ঢাকা রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৭ আশ্বিন ১৪২৬

সন্তানকে হাসপাতালে রেখে পালালেন মা-বাবা

সিলেট প্রতিনিধি
|  ২১ মে ২০১৯, ২১:২৪ | আপডেট : ২১ মে ২০১৯, ২১:৪৬
সন্তান জন্মের পর পৃথিবীর সব চেয়ে নিরাপদ আশ্রয়স্থল মা বাবার কোল। কিন্তু কিছু ক্ষেত্রে সেই মা বাবার কোল নিরাপদ নয় এমনটাই প্রমাণ করলো শিমুল আহমদ ও আয়শা বেগম নামের এক দম্পতি। সন্তান জন্ম দেয়ার পর সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নবজাতক শিশুকে রেখে পালিয়ে গেছেন বাবা মা। 

মা বাবা পালানোর পর অসুস্থ নবজাতককে চিকিৎসা দিয়ে হাজির করা হয় আদালতে। সব কিছু বিবেচনা করে আদালত আজ মঙ্গলবার নবজাতক শিশুটিকে এক পুলিশ কনস্টেবলের জিম্মায় দিয়েছেন। 

ওসমানী হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, গত ১৭ মে সকালে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শিশু বিভাগে নবজাতক ওই শিশুটিকে নিয়ে ভর্তি হন এক দম্পতি। হাসপাতালের রেজিস্ট্রারে শিশুটির বাবার নাম শিমুল আহমদ ও মায়ের নাম আয়শা বেগম এবং ঠিকানা শিবগঞ্জ সোনারপাড়া লেখা হয়। ওইদিন সন্ধ্যায় শিশুটিকে রেখে উধাও হয়ে যান ওই বাবা-মা। 

ওসমানী হাসপাতালের পুলিশ বক্সের ইনচার্জ ওমর ফারুক আরটিভি অনলাইনকে বলেন, নবজাতক শিশুটিকে রেখে বাবা-মা উধাও হয়ে যাওয়ার পর আমরা পুলিশ সদস্যরা সবাই মিলে শিশুটির দেখাশোনা করি। অসুস্থ শিশুটিকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়। আজ মঙ্গলবার শিশুটিকে সুস্থ হিসেবে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেয়া হয়। এরপর আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে শিশুটিকে সিলেট অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতের জিম্মায় হস্তান্তর করি। নবজাতক শিশুটিকে নিতে আদালতে আবেদন করেন পুলিশ কনস্টেবল রবিউল হোসেন। তিনি আদালতে কর্মরত। আদালত আবেদন বিবেচনা করে শিশুটিকে রবিউলের জিম্মায় দেন। 

এদিকে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার মিডিয়া জেদান আল মুসা আরটিভি অনলাইনকে বলেন, সেবাই হচ্ছে পুলিশের ধর্ম আর সেই ধর্ম এবং মানবিক কারণে পুলিশ সদস্যরা বাচ্চাটির পাশে দাঁড়িয়েছেন এবং একজন পুলিশ কনস্টেবল রবিউলকে আদালতের মাধ্যমে বাচ্চাটিকে দত্তক দেয়া হয়েছে বর্তমানে বাচ্চাটির মা বাবাকে খোঁজা হচ্ছে আদালতের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী যতক্ষণ পর্যন্ত তাদেরকে না পাওয়া যাবে বাচ্চাটিকে রবিউল দেখাশোনা করবে। 

এসএস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়