• ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০১৯, ৬ আষাঢ় ১৪২৬

ছাত্রলীগের সাবেক নেতার চারটি আঙুল কাটলো বর্তমানেরা

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি
|  ১৮ মে ২০১৯, ২২:০০ | আপডেট : ১৮ মে ২০১৯, ২২:১৬
চারটি আঙুল বিচ্ছিন্ন হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন জিএম তুষার হোসেন, ছবি: আরটিভি অনলাইন
সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক জিএম তুষার হোসেনের (৩০) ওপর দু’দুফা হামলা চালিয়ে তার ডান হাতের চারটি আঙুল কেটে দিয়েছেন বর্তমানেরা। অভিযোগ উঠেছে বর্তমান উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদি হাসান নাইস ও তার সহযোগীরা এ কাণ্ড ঘটিয়েছেন।

whirpool
গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। জমিদখল সংক্রান্ত বিরোধের জেরে শনিবার দুপুরে পৌরসদরে এ ঘটনা ঘটে।

আহত তুষার কলারোয়া বাসস্ট্যান্ড এলাকায় অবস্থিত তুষার ইলেকট্রনিক্সের মালিক ও উপজেলার পাটলি গ্রামের মুনছুর আলী গাজীর ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, আজ বেলা দেড়টার দিকে কলারোয়া বাসস্ট্যান্ডে অবস্থিত বিশ্বাস মার্কেটের সামনে উপজেলা ছাত্রলীগের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক মেহেদি হাসান নাইসের নেতৃত্বে ৫-৭ জন যুবক তুষারকে মারপিট করে। পরে তুষার কলারোয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য গেলে ফের তার ওপর হামলা করে দুর্বৃত্তরা। এ সময় ধারালো অস্ত্রের আঘাতে তুষারের ডান হাতের চারটি আঙুল পুরোপুরি বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। পরে হামলাকারীরা হাসপাতালের দেয়াল টপকে পালিয়ে যায়। গুরুতর আহত তুষারকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

কলারোয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. শফিকুল ইসলাম জানান, বেলা দুইটার দিকে এক যুবক সামান্য আহত হয়ে হাসপাতালে আসেন। টিকিট সংগ্রহ করে দ্বিতীয় তলায় ওঠার সময় কতিপয় যুবক তার ওপর হামলা করে। এতে তার ডান হাতের চারটি আঙুল বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

আহত তুষারের বাবা মুনছুর গাজী জানান, পাটুরিয়া গ্রামে ৩৩ শতক জমি নিয়ে আমাদের সঙ্গে বিরোধ চলছিল জনৈক মন্টুর। এরই জের ধরে দুপুরে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদি হাসান নাইসের নেতৃত্বে মন্টু, পলাশ, বাবু, জুয়েলসহ ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী আমার ছেলেকে পিটিয়ে আহত করে। হাসপাতালে যাওয়ার পর তার ডান হাতের চারটি আঙুল কেটে দিয়েছে।

তবে অভিযোগ অস্বীকার করে উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ মেহেদী হাসান নাইস বলেছেন, জল ঘোলা করার জন্য জামায়াত পরিবারের সদস্য বাবু এই ঘটনা ঘটিয়েছে। এর সঙ্গে আমার কোনো সম্পৃক্ততা নেই।

কলারোয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুজ্জামান আরটিভি অনলাইনকে জানান, এ ঘটনায় আহত তুষারের চাচা আবু সিদ্দিক বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা করেছেন। দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেবি/পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়