logo
  • ঢাকা সোমবার, ২২ জুলাই ২০১৯, ৭ শ্রাবণ ১৪২৬

ধর্ষণের ১৪ বছর পর বিচার পেল স্কুলছাত্রী

রংপুর প্রতিনিধি
|  ১৬ এপ্রিল ২০১৯, ১৭:৫৬
ছবি-সংগৃহীত
রংপুরে এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের ১৪ বছর পর উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তাকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এছাড়া তাকে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। 

আজ মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) দুপুরে রংপুর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারক রোকনুজ্জামান রায় ঘোষণা করেন। এ সময় আসামি কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন। 

আসামি জাকিরুল ইসলাম মিলন রংপুরের বদরগঞ্জ উপজেলার রামনাথপুর ইউনিয়নের পাঠানপাড়া গ্রামের আনছার আলীর ছেলে। তিনি নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলায় উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা পদে চাকরি করছেন।

মামলা ও আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০০৫ সালের ৪ জুলাই আসামি মিলন প্রতিবেশীর স্কুল পড়ুয়া মেয়েকে বাড়িতে ডেকে নিয়ে হাত বেঁধে ধর্ষণ করেন। নয় দিন পর মিলনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ আদালতে মামলা দায়ের করেন তার বাবা। ওই মামলায় আসামি ও বাদীপক্ষের ১৫ জনের স্বাক্ষ্যগ্রহণ শেষে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় আসামি জাকিরুল ইসলাম মিলনকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড দেন। একই সঙ্গে আসামির কাছ থেকে এক লাখ টাকা জরিমানা আদায় করে নির্যাতিতা ওই ছাত্রীকে প্রদানের নির্দেশ দেন বিচারক।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ও নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) জাহাঙ্গীর হোসেন তুহিন বলেন, এই রায়ে বাদীপক্ষ ন্যায় বিচার পেয়েছেন। এতে করে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বলে তিনি মনে করেন।

আসামিপক্ষের আইনজীবী ছিলেন রশীদ চৌধুরী ও এমদাদুল হক।

এসএস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়